অবশেষে তামিম ইস্যুতে মুখ খুললেন সাকিব; দিলেন সব ব্যাখ্যা

আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের দলে জায়গা পাননি তামিম ইকবাল। দেশসেরা ওপেনারের বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে বাদ পড়ার পেছনে অনেকটাই দায়ী করা হচ্ছে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে। তবে এবার এই বিষয়ে ব্যাখ্যা দিলেন সাকিব।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত হয়েছে সাকিবের একটি সাক্ষাৎকার। সেখানে তামিমের বাদ পড়ার প্রসঙ্গে কথা বলেছেন সাকিব। বিভিন্ন বক্তব্যে তিনি ইঙ্গিত করেছেন, তামিমের বাদ পড়ার পেছনে দায়ী নন তিনি।

সাকিব বলেন, ‘আমি তো দল পরিচালনা করি না। ড্রেসিংরুমের পরিবেশের ব্যাপার আছে, মাঠ এবং মাঠের বাইরের বিষয় আছে, একটা লম্বা প্রসেসে দল ঠিক করা হয়। আমার কাছে মনে হয় আমি এগুলোতে কমই জড়িত।’

এসময় সাকিব বলেছেন, পজিশন পরিবর্তন করতে অসম্মতির মানে তো নিজের জন্য খেলা বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় থাকলেও শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ দলে নেই তামিম ইকবাল। ঝামেলা বেঁধেছে মূলত তামিম ব্যাটিং পজিশন বদল করে খেলতে না চাওয়ায়।

তামিমকে বিসিবি থেকে প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল বিশ্বকাপে ব্যাটিং অর্ডারের নিচের দিকে ব্যাট করার জন্য। বিষয়টি শুনেই নাকি উত্তেজিত হয়ে যান ড্যাশিং ওপেনার। কেননা ক্যারিয়ারের প্রায় শুরু থেকেই তিনি ওপেনিংয়ে খেলে আসছেন। তার এমন সিদ্ধান্তকে বাচ্চামি বলে উল্লেখ করেছেন সাকিব।

বাংলাদেশ অলরাউন্ডার বলেন, ‘রোহিত শর্মার মতো একজন লোক সাত নম্বর থেকে এসে ওপেনিংয়ে খেলছেন। তো ও (তামিম) যদি মাঝে মাঝে তিন-চারে খেলে কিংবা ব্যাট না করে তাহলে কী খুব বেশি প্রবলেম হয়ে যাবে। এটা আমার কাছে মনে হয় বাচ্চামি। বিষয়টা এমন যে আমার ব্যাট আমিই খেলব। আর কেউ খেলতে পারবে না।’

সাকিব যোগ করেন, ‘টিমের প্রয়োজনে যে কারোর যে কোনো পজিশনে খেলতে রাজি থাকা উচিত। টিম ফার্স্ট। আপনি ব্যক্তিগতভাবে কী করলেন, আর দল হারল। তাতে কোনো লাভ নেই তো। ব্যক্তিগত অর্জন দিয়ে আপনি কী করবেন? শুধু নিজের কথা চিন্তা করছেন, দলের জন্য না! মানুষ এই পয়েন্টগুলোই বুঝে না।’

সাকিব আরো বলেন, ‘বিসিবি প্রস্তাব দিয়েছিল দলের ভালোর জন্য। এটাতে খারাপ কী আছে। আপনাকে বলতে যে আমি প্রস্তুত, পারব। তাহলে না আপনি টিমমেট, নইলে কীসের টিমমেট। আপনি নিজের জন্য খেলছেন, নিজের অর্জনের জন্য, নিজের খ্যাতির জন্য, দলের জন্য না।’