এবারের আইপিএল দেখতে হলে আপনাকে অবশ্যই যেসব নিয়ম জানতে হবে

আগামীকাল (২২ মার্চ) থেকে শুরু হবে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেট লিগের আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ(আইপিএল)। বিশ্বের সকল ক্রিকেট প্রেমীদেরই নজর থাকবে জনপ্রিয় এই লিগে। যেখানে পারফর্ম বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সব ক্রিকেটাররা।

আইপিএল জনপ্রিয় হওয়ার পেছনে যে দুই ভূমিকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তার একটি জনপ্রিয় ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ, আরেকটি হলো সময়ের সাথে এই টুর্নামেন্টে নতুন নিয়মের প্রবর্তন। আইপিএলের প্রতি আসরেই যুক্ত হয় কোন না কোন নতুন নিয়ম, এবারও এর ব্যতিক্রম নয়। এবারের আসরে থাকছে নতুন বেশ কিছু নিয়ম।

ইমপ্যাক্ট প্লেয়ার, স্ট্র্যাটেজিক টাইম-আউটের অভিনব ভাবনা এখনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চালু না হলেও আইপিএলের নিয়ম চমক হিসাবে আবির্ভূত হয়েছে ব্যাট-বলের জগতে। এবার আরও একের পর এক নিয়ম চালু হতে চলেছে আইপিএলে। যা ইতোমধ্যেই আলোচনার তুঙ্গে। এবারের আইপিএল দেখতে হলে যা দর্শকদের জন্য যানা খুবই জরুরি। একনজরে দেখে নেওয়া যাক এবারের আইপিএলে যুক্ত হচ্ছে যেসব নতুন নিয়ম।

ওভার-প্রতি দুই বাউন্সার:
এবার আইপিএল দেখতে চলেছে ওভার পিছু দুই বাউন্সারের নিয়ম। আন্তর্জাতিক ওয়ানডে এবং টেস্টে ওভারে দুই বাউন্সারের নিয়ম চালু থাকলেও এবার টি২০-তে আইপিএলের সৌজন্যে বোলারের হাতে নতুন অস্ত্র উঠে গেল।

আইপিএলে এমনিতেই ব্যাটারদের তান্ডব চলে। ব্যাটিং এবং বোলিংয়ের মধ্যে ভারসাম্য আনতেই চালু করা হল দুই বাউন্সার নিয়ম। ভারতের সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে এই নিয়ম সফলভাবে প্রয়োগ করা হয়েছিল। তারপরেই এই নিয়ম এবার নিয়ে আসা হচ্ছে আইপিএলে।

স্মার্ট রিপ্লে সিস্টেম:
এছাড়াও এবারের আইপিএল দেখবে স্মার্ট- রিপ্লে সিস্টেম। গোটা মাঠ জুড়ে আটটা হাইস্পিড হক-আই ক্যামেরা ইনস্টল করা থাকবে। টিভি আম্পায়ারের কাছে যা রিয়েল টাইম ইমেজ দ্রুতগতিতে পাঠিয়ে দেবে। যাতে সিদ্ধান্ত নিরুপন তৎক্ষণাৎ হয়।

এর আগে টিভি আম্পায়ারকে নির্ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সম্প্রচারকারী সংস্থার ইমেজ-ফিডের ওপর নির্ভর করতে হত। তবে এবার টিভি আম্পায়ার সরাসরি একাধিক কৌণিক দৃষ্টিকোণ থেকে সংশ্লিস্ট সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ইমেজ দ্রুত পেয়ে যাবেন তাঁর স্ক্রিনে। স্প্লিট স্ক্রিন ইমেজও হাজির হয়ে যাবে তাঁর কাছে।

স্ট্যাম্পিংয়ের সময় ক্যাচিং রিভিউ:
এমনকি স্ট্যাম্পিং আবেদনের সময় ক্যাচের বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে। নিয়ম অনুযায়ী, লেগ আম্পায়ার টিভি আম্পায়ারের কাছে স্ট্যাম্পিং চেক করার আবেদন জানান। তবে স্ট্যাম্প চেকিংয়ের সময় ক্যাচের বিষয় খতিয়ে দেখা হয়না। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ক্যাচ পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব অনফিল্ড আম্পায়ারদের। তবে বিসিসিআইয়ের বক্তব্য, স্ট্যাম্পিংয়ের সময় ক্যাচের পরীক্ষা করার দায়িত্বও পাওয়া উচিত টিভি আম্পায়ারদের।

ওয়াইড-নো বলেও রিভিউ:
এবার আরও এক নয়া নিয়ম অনুযায়ী, প্রত্যেক ইনিংসে সমস্ত দলের জন্য দুটো করে রিভিউ বরাদ্দ থাকবে। এমনকি ফিল্ডিং দল নো এবং ওয়াইড বলের ক্ষেত্রে অনফিল্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে রিভিউ নিতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে কোনও স্টপ ক্লক নিয়ম থাকছে না। আইসিসি সম্প্রতি রিভিউয়ের জন্য স্টপ ক্লকের ব্যবহার চালু করেছে।

ইমপ্যাক্ট প্লেয়ার:
গত আসরেই চালু হয়েছিল ইমপ্যাক্ট প্লেয়ারের নিয়ম। এগারো জনের বদলে প্রত্যেক দল বারো জনের সার্ভিস নিতে পারবে। এগারো জনই ফিল্ডিং এবং ব্যাটিং করবে। তবে ইনিংসের মাঝপথে একজন তারকাকে বসিয়ে অন্য কাউকে অন্তর্ভুক্ত করতে পারে সংশ্লিস্ট দল। সেই নিয়ম এবারেও বহাল থাকছে।