এবারের বিশ্বকাপে যাকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করলো অক্টপাসের উত্তরসূরি অ্যাকিলেস

21002

জার্মানির অক্টোপাস পল দুটি বাক্সে রাখা খাবার থেকে যেকোনও একটি বেছে নিত। সেই দুই বাক্সের গায়ে থাকত দুই দেশের পতাকা-জার্সি। ঠিক এভাবেই সে মিলিয়ে দিয়েছিল ২০১০ বিশ্বকাপে স্পেনের বিশ্বজয়ী হওয়ার বিষয়টি।

এবার কাজে নেমে পড়েছে অক্টোপাস পলের উত্তরসূরি অ্যাকিলেস। তবে তার ভবিষ্যতবাণী হযবরল’র বিড়ালের মতো নাকি পলের মতো তা অবশ্য সময়ই বলবে। বিশ্বকাপ শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগে বধির বিড়াল প্রথম ম্যাচের বিজয়ী হিসেবে বেছে নিয়েছে স্বাগতিক রাশিয়াকেই।

পলের মতো অ্যাকিলেসের সামনে রাখা হচ্ছে দুটি দেশের জার্সির রঙে রাঙানো বাটি। যেকোনও একটিকে বেছে নিতে হবে তাকে। এক্ষেত্রে বুধবার অ্যাকিলেস বেছে নেয় রুশ দলকে।

অ্যাকিলেসের বসবাস সেন্ট পিটার্সবার্গের হার্মিটেজ মিউজিয়ামে। তবে বিশ্বকাপের সময় তার ঠিকানা সামান্য বদলাচ্ছে। হার্মিটেজ মিউজিয়ামের বেসমেন্ট থেকে সে চলে এসেছে কাছের ‘ক্যাট রিপাবলিক’ ক্যাফেতে। তার দেখভাল ‍যিনি করেন সেই সেই আন্না কাসাতকিনা বলেছেন, ‘আমরা অ্যাকিলেসকে বেছে নিয়েছি, কারণ সে খুব সুন্দর এবং সব নীল চোখের সাদা বিড়ালের মতো। এছাড়া সে বধির। তাই ওর অনুমানক্ষমতা দুর্দান্ত। ও নিজের হৃদয় দিয়ে দেখতে পায়।’

সঙ্গে আন্নার সংযোজনন, ‘অ্যাকিলেসের ঠিকানা বদলাচ্ছে, কারণ বিশ্বকাপের সময় ওর সঙ্গে অনেকে দেখা করতে চাইবে।’

কেন অ্যাকিলেসকে বেছে নেয়া হয়েছে তার কারণও রয়েছে। ২০১৭’র কনফেডারেশনস কাপের সময় চারটি ম্যাচের মধ্য তিনটির ফল মিলিয়ে দিয়েছিল অ্যাকিলেস। সেন্ট পিটার্সবার্গে সেই ম্যাচগুলো হয়েছিল। তখনই ঠিক হয়, বিশ্বকাপের সময়ও অ্যাকিলেসকে ব্যবহার করা হবে।

শুধু পল বা অ্যাকিলেসই নয়, ২০১৪ সালে সুইজ গিনিপিগ মাদামে শিভাও এমন কাজ করেছিল। তবে অক্টোপাস পলের মতো সাফল্য পায়নি সে। অ্যাকিলেস এখন পলের সাফল্য ছাড়িয়ে যেতে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়। তবে প্রথম ম্যাচের অ্যাকিলেস তার ফল মিলিয়ে দিতে পারলে ক্রীড়াবিশ্বের কিছুটা বিশ্বাস যে তার উপর জন্মাবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।