উত্তেজনাকর ম্যাচে ভারতকে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জিতল নিউজিল্যান্ড

46

শেষ ১২ বলে ভারতের প্রয়োজন হয় ৩০ রান। উইকেটে তখন নিদাহাস ট্রফিতে ঝড় তোলা দিনেশ কার্তিক এবং তার সাথে ক্রুনাল পান্ডে। হয়তো কার্তিকের জন্য কিছুটা আশা বেঁচেছিল ভারতের।

বোলিংয়ে আসেন কাগেলিজন। প্রথম দুই বলে এক রান দিয়ে তৃতীয় বলে ছক্কা হজম করেন কার্তিকের হাতে। পরের বলে ১ রান নেন কার্তিক। এরপর ক্রুনাল পান্ডে গিয়ে ৫ম বলটি ডট দিয়ে শেষ বলে ছক্কা মারেন। এই ওভারে ১৪ রান তুলে নেয় ক্রুনাল-কার্তিক।

ফলে জয়ের জন্য শেষ ওভারে ভারতের প্রয়োজন হয় ১৬ রান। সাউদির করা শেষ ওভারের প্রথম বলে ২ রান নেন কার্তিক। পরের বলটি ডট দেন সাউদি। তৃতীয় বলে এক রান নেয়ার সুযোগ থাকলেও রান নেননি কার্তিক। ১২ বলে ২৫ রান করা ক্রুনালকে যেন বিশ্বাস করতে পারছিল না কার্তিক।

চতুর্থ বলে এক রান নিলে ভারতের জয়ের আশা শেষ হয়ে যায়। ২ বলে প্রয়োজন ১২ ড্র করতে হলে। ৫ম বলে এক রানের বেশি নিতে পারেনি ক্রুনাল। শেষ বলে প্রয়োজন ১১ রান। সাউদি দেন ওয়াইড। ফলে ১ বলে প্রয়োজন হয় ১০ রান। এক বলে যেমন ১০ রান নেয়া অসম্ভব, তেমনটি ভাবে শেষ বলে ছক্কা মারলেও ৪ রানে ম্যাচ হারে ভারত।

এর আগে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২১৩ রানের জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতে ঝড় তুলেন রোহিত ও ভিজয় শঙ্কর। ৬ রানে ধাওয়ানকে হারানোর পর ঝড় তুলেন তারা। ২৮ বলে ৪৩ রান করে ভিজয় আউট হলে ভাঙে এই জুটি। রোহিতের সাথে এরপর জুটি বাধেন রিশাব পান্ট। ঝড়ো ব্যাটিং করা পান্ট ১২ বলে ২৮ রান করে ফিরে যান।

এরপর বিদায় নেন রোহিত। আউট হন ৩২ বলে ৩৮ রান করে। হার্ডিক পান্ডেয়ার ঝড় থামে ১১ বলে ২১ রান করে। এরপর কার্তিক ১৬ বলে ৩৩ এবং ক্রুনাল পান্ডে ১৩ বলে ২৬ রান করে ঝড় তুললেও ৪ রানে হেরে মাঠ ছাড়ে ভারত।

এদিকে আগে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ২১২ রান করে নিউজিল্যান্ড। দলের পক্ষে সেইফার্ট ২৫ বলে ৪৩, মুনরো ৪০ বলে ৭২, কেন উইলিয়ামসন ২১ বলে ২৭, গ্রান্দেহোম ১৬ বলে ৩০, মিশেল ১১ বলে ১৯ এবং রস টেলর ৭ বলে ১৪ রান করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
নিউজিল্যান্ড: ২১২/৪ (২০)
সেইফার্ট ৪৩, মুনরো ৭২, গ্রান্ডহোম ৩০, উইলিয়ামসন ২৭।
কুলদীপ ২/২৬।

ভারত: ২০৮/৬ (২০)
রোহিত ৩৮, বিজয় শংকর ৪৩, কার্তিক ৩৩*, কুর্নাল ২৬*

২-১ ব্যবধানে সিরিজে জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ মুনরো আর সিরিজ হয়েছেন টিম সেইফার্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here