শরিফুলের দুর্দান্ত বোলিংয়ে অজিদের বিপক্ষে অপরাজিত টাইগার যুবারা

যুব বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট দলের সাথে ড্র করে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করলো টাইগার যুবারা। টাইগারদের ২৫০ রানের জবাবে অজিরাও অলআউট হয় ২৫০ রানে।

বাংলাদেশের দেওয়া ২৫১ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়াকে ভালো সুচনা এনে দেন দুই ওপেনার লিয়াম স্কট ও স্যাম ফেনিং। দুজনে গড়েন ৬৬ রানের জুটি। তাদের এ জুটি ভাঙে রান আউটে।

এরপর ধারাবাহিকভাবে অজিদের উইকেট নিতে থাকেন শরিফুল ও তানজিদ হাসান। নিয়মিত বিরতিতে অজিদের ৮ উইকেট নিলেও শেষ দিকে উইকেট নিতে ব্যর্থ হয়। কিন্তু শেষ ওভারে শরিফুলের দুর্দান্ত বোলিংয়ে অজিদের ২৫০ রানে অলআউট করে ম্যাচ টাই করে টাইগার যুবারা।

দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৪ উইকেট নেন শরিফুল। এছাড়াও তানজিদ হাসান নেন ২ উইকেট।

এর আগে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে কার্টেল ওভারে (৪৩) টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে আসেন দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান তানজিদ হাসান তামিম ও  পারভেজ হোসাইন ইমন। তানজিদ ৩২ রান করে ফিরলেও অর্ধশতক করেন ইমন। ৫২ রান করে রিটায়ার্ড করেন তিনি।

এরপর তৌহিদ হৃদয় ৫৩ রান করে ফিরে যান। পরবর্তীতে ব্যাটিংয়ে ঝড় তুলে ২৬ বলে অর্ধশতক পুরন করেন শামিম। তার অপরাজিত ৩৩ বলে ৫৯ রানে নির্ধারিত ৪৩ ওভারে ২৫০ রানের পুঁজি গড়ে টাইগার যুবারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ২৫০/৬ (৪৩)
শামিম হোসাইন ৫৯*, তৌহিদ হৃদয় ৫৩, ইমন ৫২।

অস্ট্রেলিয়া অনুর্ধ-১৯ ২৫০/১০
স্যাম ফেনিং ৪৬, কেলি ৪৪।
শরিফুল ৪/৩৯।

উল্লেখ্য, ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে বিশ্বকাপের মূল পর্বের খেলা। একদিন পর ১৮ জানুয়ারি নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে টাইগার যুবারা। চার গ্রুপের খেলা শেষে ২৮ থেকে ৩১ জানুয়ারি হবে চারটি কোয়ার্টার-ফাইনাল। ৪ ও ৬ ফেব্রুয়ারি হবে দুটি সেমি-ফাইনাল। ৯ ফেব্রুয়ারি হবে ত্রয়োদশ আসরের ফাইনাল।