বিপিএল খেলতে নিজেই আগ্রহ দেখিয়েছেন ক্রিস গেইল

হুট করে নতুন বিতর্কে জড়িয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। ড্রাফটে নিজের নাম কীভাবে এলো তার কিছুই নাকি জানতেন না উইন্ডিজ তারকা ক্রিস গেইল। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বলছে ভিন্ন কথা। নিজে থেকেই বিপিএলে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন এ ক্যারিবিয়ান। ড্রাফটের আগে তার এজেন্টের পাঠানো পাঠানো ডকুমেন্টে গেইলের সাক্ষরও রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন সুজন।

ডেইলিস্টারের সঙ্গে একান্ত আলাপে সুজন বললেন, ‘প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগে খেলোয়াড়দের সঙ্গে আমরা একটা নিয়ম মেনেই তালিকায় নাম দেই। গেইলের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। তার এজেন্ট আমাদের যে ডকুমেন্ট দিয়েছে তাতে গেইলের সাক্ষর রয়েছে। আপনি যখন আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন এরপর আমি ডকুমেন্ট যাচাই করে দেখেছি।’

অন্যদিকে গেইল বলেছিলেন ভিন্ন কথা। সাম্প্রতিক সময়টা খারাপ যাওয়ায় চলতি বছরের বাকিটা সময় বিশ্রাম নিতে চেয়েছেন। এমন কি জাতীয় দলের হয়ে ভারত সফরেও আগ্রহ দেখাননি, ‘উইন্ডিজ আমাকে ডেকেছিল ওয়ানডে খেলার জন্য। কিন্তু আমি খেলতে যাচ্ছি না। আমি বিগব্যাশও খেলতে যাচ্ছি না। আমি ঠিক জানিনা সামনে কী ক্রিকেট আসছে। এমনকি আমি এটাও জানিনা, কীভাবে আমার নাম বিপিএলে এলো। কিন্তু আমি ড্রাফটে একটা দলে আছি জানিনাও এটা কীভাবে হলো।’

ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো এ সংবাদ প্রকাশ করার পর থেকেই এ নিয়ে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে ক্রিকেট পাড়ায়। বিষয়টি হয়তো এজেন্টের সঙ্গে গেইলের ব্যক্তিগত কোন সমস্যায় এমনটা হতে পারে বলেও গুঞ্জন উঠেছে। সে গুঞ্জনেও পানি ঢেলেছেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের টিম ডিরেক্টর ও বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। কারণ তাদের সঙ্গে গেইলের দেন দরবার সম্পর্কিত আলোচনা চলছিল বলেই জানান তিনি। তাতে সহজেই প্রমাণ হয় গেইল যদি কিছু নাই জেনে থাকেন তাহলে কেন টাকা নিয়ে আলোচনা করবেন।

‘প্রথম সুযোগেই গেইলকে নিয়েছি আমরা। তাকে ঘিরেই সব পরিকল্পনা। সে না এলে তো বড় বিপদে পড়ব আমরা। ড্রাফট থেকে তাকে নেওয়ার পর তার সঙ্গে আমরা আলোচনা করি। টাকা পয়সা নিয়ে আলোচনা চলছিল। কিন্তু কয়েক দিন থেকে সে কিছু জানায়নি। এরপর হঠাৎ করেই এ সংবাদ শুনলাম। বুঝতে পারছি না এখানে সমস্যাটা কোথায়।’ -ডেইলি স্টারকে এমনটাই জানিয়েছেন জালাল ইউনুস।

সূত্রঃ ডেইলি স্টারঃ