বিমানবন্দরে এসেও দেশে ফেরা হলোনা সাইফের

দেশে ফেরার জন্য কলকাতার নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু বিমানবন্দরে এসেও সেখান থেকে আবারো টিম হোটেলে ফেরত যেতে হয়েছে জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাইফ হাসানকে।

মেয়াদোত্তীর্ণ ভিসার কারণে বাংলাদেশ বিমানের বোর্ডিং থেকে তাকে ফিরিয়ে দেয় কলকাতা পুলিশ। তবে তার সাথের বাকি তিন ক্রিকেটার দেশে ফিরেছেন। ২৪ নভেম্বর ভিসার মেয়াদের শেষ দিন ছিল সাইফের। কিন্তু তিনি সেটি খেয়াল করেননি। যার কারণে একদিন পর রওনা দেওয়ায় আবারো টিম হোটেলে ফেরত যেতে হয় তাকে।

সাইফ নিজেই তার ভিসা-জটিলতার কথা নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। ২৪ তারিখ পর্যন্ত মেয়াদ ছিল কিন্তু আমি যাচ্ছিলাম ২৫ তারিখ। কালকে (বুধবার) চলে যাব ইনশাআল্লাহ। আশা করছি, হয়ে যাবে, কাল দুপুরে জানিয়ে দেবে (হাইকমিশন)।’

টেস্ট সিরিজ খেলতে সাইফ ভারতে এসেছিলেন গেল ৮ নভেম্বর। কিন্তু তার ভিসা করানো হয়েছিল বেশ আগে। ভারতে বিসিবি একাদশের হয়ে বিদর্ভের বিপক্ষে গেল জুন মাসে খেলতে এসেছিলেন তিনি। এবার জাতীয় দলের হয়ে ভারত সফরের শেষ দিকে তার সেই ভিসার মেয়াদ ফুরিয়ে যায়, যা বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টের কেউই নজরে আনেননি।

অবশ্য সেটি নজরে আসলে ২৪ নভেম্বর মুমিনুলদের সাথেই দেশে ফিরতে পারতেন সাইফ। কিংবা তার কলকাতা টেস্টে না থাকাটা অনিশ্চিত হওয়ার পরেই আসতে পারতেন দেশে। তার নিজের এবং টিম ম্যানেজম্যান্টের উদাসীনতার কারনে বিপাকে পড়তে হলো এই ক্রিকেটারকে।