ইংল্যান্ডও হারলো ইনিংস ব্যবধানে

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের টানা ৬ ম্যাচে ইনিংস ব্যবধানে হারের নতুন এক রেকর্ড দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব। যার সবগুলোই নিজেদের মাঠে জিতেছে দলগুলো। নতুন এই রেকর্ড ঘটেছে কিউইদের মাঠে ইংলিশদের ইনিংস ব্যবধানে হারে।

নিউজিল্যান্ডকে প্রথমে চাপে ফেললেও সেই ইংলিশরা প্রথম টেস্টে হেরেছে ইনিংস ব্যবধানে। কিউইদের কাছে প্রথম টেস্টে এক ইনিংস ও ৬৫ রানে হেরেছে জো রুটের দল।

আগে ব্যাট করতে নেমে বেন স্টোকসের ৯১, জো ডেনলির ৭৪ ও জো বার্নসের ৫২ রানে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৩৫৩ রানে অলআউট হয় ইংল্যান্ড।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান বিজে ওয়াটলিংয়ের ২০৫, স্যান্টনারের ১২৬ ও গ্র্যান্ডহোম-উইলিয়ামসনের অর্ধশতকে ৯ উইকেটে ৬১৫ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড।

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৫ হারায় ৩ উইকেট । যে কারণে বেশ চাপে পড়ে জো রুটের দল। স্যাান্টনারই প্রাথমিক ধাক্কাটা দেন ইংলিশ দলকে। জো বার্নস (৩১), ডম সিবলে (১২) ও জ্যাক লিচকে (০) তুলে নিয়ে।

২০৭ রানে পিছিয়ে থেকে সোমবার ম্যাচের শেষ দিন মাঠে নামে ইংল্যান্ড। টেস্ট বাঁচাতে হলে তাদের পুরো পঞ্চমদিন ব্যাট করতে হত। অনুমিতভাবে কঠিন সেই পরীক্ষায় উতরাতে পারেনি ইংল্যান্ড। ১৯৭ রানেই শেষ হয়ে যায় তাদের ইনিংস। আর ম্যাচ হারে ইনিংস ও ৬৫ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ইংল্যান্ড (প্রথম ইনিংস) ৩৫৩/১০
স্টোকস ৯১, ডেনলি ৭৪।
টিম সাউদি ৪/৮৮, নিল ওয়াগনার ৩/৯০।

নিউজিল্যান্ড (প্রথম ইনিংস) ৬১৫/৯(ডিক্লেয়ার)
ওয়াটলিং ২০৫, স্যান্টনার ১২৬।
স্যাম কুরান ৩/১১৯, স্টোকস ২/৭৪।

ইংল্যান্ড (দ্বিতীয় ইনিংস) ১৯৭/১০
ডেনলি ৩৫, বার্নস ৩১।
ওয়াগনার ৫/৪৪, স্যান্টনার ৩/৫৩।

ফলাফলঃ নিউজিল্যান্ড ইনিংস ও ৬৫ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরাঃ বিজে ওয়াটলিং।