জাতীয় লিগে ১০ উইকেট নিয়ে রুয়েল মিয়ার রেকর্ড

জাতীয় ক্রিকেট লীগের ষষ্ঠ রাউন্ডে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে চিটাগংয়ের বিপক্ষে একাই ১০ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়েছেন সিলেট বিভাগের ১৮ বছর বয়সী পেসার রুয়েল মিয়া।

নিজের মাত্র তৃতীয় প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলতে নামা রুয়েল প্রথম ইনিংসের ৮টির সঙ্গে আজ দ্বিতীয় ইনিংসে এরই মধ্যে ২ উইকেট যোগ করে ফেলেছেন।

আগের দিন ১০৬ রানে অলআউট হওয়া চট্টগ্রাম আজ দ্বিতীয় দিন সিলেটকে থামায় ২৩০ রানে। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে আবারও প্রথম ওভারে উইকেট হারায় চট্টগ্রাম। পিনাক ঘোষকে ফিরিয়ে দেন ইমরান আলী। পরের ওভারে আলভি হককে ফেরান রুয়েল।

এরপর সাদিকুর রহমান ও তাসামুল হক প্রতিরোধের চেষ্টা করছিলেন। ষোড়শ ওভারে তাসামুলকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙার পাশাপাশি ম্যাচে ১০ উইকেট পূর্ণ করেন রুয়েল।

প্রথম দিন বগুড়ায় টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে নামা সিলেটকে দারুণ সূচনা এনে দেন রুয়েল মিয়া। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে চিটাগং। দাড়াতে পারেনি তেমন কোন ব্যাটসম্যানই। দুই অঙ্কের ঘরে পৌছাতে পারেন কেবল তিনজন।

৫ উইকেট হাতে রেখে মধহ্নবিরতিতে যাওয়া চিটাগং বিভাগ দ্বিতীয় সেশনে নেমেই রুলের মিয়ার বোলিংতোপে পড়ে। ৫ টি উইকেটই নেন এই তরুণ পেসার। শেষ পর্যন্ত মাত্র ১০৬ রানেই অলআউট হয় চিটাগং।

১৪.১ ওভার বোলিং করে ৪ মেডেন দিয়ে ২৬ রানের বিনিময়ে ৯ উইকেট নেন রুরেল মিয়া। যত গত ৭ বছরের ইতিহাসে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশী কোন পেসারের সেরা বোলিং ফিগারের রেকর্ড।