যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হচ্ছেন সাকিব আল হাসান!

স্ত্রী কন্যার সাথে সাকিব আল হাসান।

ম্যাচ ফিক্সিং-এর প্রস্তাব পেয়েও তা আইসিসিকে না জানানোয় আইসিসি কর্তৃক দুই বছরের শাস্তি পেয়েছেন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হলেও সাকিব নিজের দোষ স্বীকার করায় তার শাস্তির মেয়াদ হবে এক বছর।

তবে এখন গুঞ্জন উঠেছে দেশের বাইরে চলে যাবেন সাকিব। যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী নিবাস গড়তে যাচ্ছেন তিনি। সাকিবের স্ত্রী শিশির ও কন্যা আলাইনা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। বিয়ের সূত্রে সাকিব সেখানকার গ্রিনকার্ডধারী। জানা গেছে, তিনি সেখানে একটি ক্রিকেট স্কুল প্রতিষ্ঠা করতে চান।

ক্রিকেটে ১ বছর নিষিদ্ধ হওয়ায় এসময়টা কাজে লাগাতে চান সাকিব আল হাসান। একটানা দুই বছর দেশটিতে থাকলে সেখানকার নাগরিকত্ব পাবার যোগ্য হবেন তিনি। শিশির চান সাকিব এই মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রে থাকুক এবং দেশটির নাগরিকত্ব গ্রহণ করুক।

সিটিজেন স্ত্রীর সূত্রে নাগরিকত্ব পেতে যুক্তরাষ্ট্রে তিন বছরে কমপক্ষে ১৮ মাস বসবাস করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সাকিব সেই সুযোগটি গ্রহণ করছেন বলে জানিয়েছে একটি সূত্র।