দিল্লির দূষিত আবহাওয়ায় নিঃশ্বাস নেওয়া দায় কোচ-ক্রিকেটারদের!

সিরিজের প্রথম টি টোয়েন্টি ম্যাচকে সামনে রেখে নয়াদিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম অনুশীলনে লিটন দাস নামেন মুখে মাস্ক পরে। গণমাধ্যমে লিটন নিজের ব্যক্তিগত সমস্যার কারনে মাস্ক পরার কথা জানালেও দ্বিতীয় দিনেই মাস্ত পরে অনুশীলনে নামতে দেখা গিয়েছে বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারসহ টাইগার কোচদের।

বিশ্বের অন্যতম দূষিত শহরের একটি হচ্ছে ভারতের নয়াদিল্লি। বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, ভারতের নয়াদিল্লি দূষিত বাতাসের শহরে পরিণত হয়েছে। বাতাসের মান সূচকে (একিউআই) বেশ কিছুদিন ধরেই শীর্ষে রয়েছে দেশটির রাজধানী। ইতোমধ্যেই জরুরি অবস্হাও জারি করা হয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিশেষ মাস্ক বিতরণ করার সময় দিল্লিকে গ্যাস চেম্বারের সঙ্গে তুলনা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

আর সেখানে খেলতে গিয়ে দূষিত বাতাসের কবলে পড়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি এবং দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বর্তমানে ভারতে রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা।

অরুন জেটলি স্টেডিয়ামের আগের নাম ছিল ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়াম। ২০১৭ সালে ওই স্টেডিয়ামেই মাস্ক পরে মাঠে নেমেছিল শ্রীলঙ্কা। টেস্ট ম্যাচ চলার সময় শ্বাসকষ্টে ভুগছিল তারা।

আজ শুক্রবার দূষিত বাতাসের কারণে সৌম্য, আল আমিন সহ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার ও কোচদের মাস্ক পরে অনুশীলন করতে দেখা গেছে।

সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে যে দিল্লির বাতাসের মানের মারাত্মক অবনতি হয়েছে। তবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নবনিযুক্ত সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি বলেছেন, ‘পরিকল্পনা অনুযায়ী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।’

এর আগে ভারতের সাবেক ওপেনার গৌতম গম্ভীর গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বাতাসের মানের উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত দিল্লিতে কোনো খেলার আয়োজন করা উচিত হবে না। ভারতের জনগণের চেয়ে খেলা বড় নয়।’