করাচীর অনার্স বোর্ডে ‘জ্বলজ্বল করছে অলক কাপালীর নাম’

২০০৮ সালের পাকিস্তান এশিয়া কাপ। ভারতের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে স্কোরবোর্ডে ২৮৩ রান করে বাংলাদেশ। তামিম ইকবালের ফিফটির পর করাচি ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ব্যাট উঁচিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি উদযাপন করেন অলক কাপালি। ৯৬ বলে ১১৫ রান করেন তিনি। যদিও ম্যাচটি হেরে বসে বাংলাদেশ। তবে সেই সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে করাচি অর্নাস বোর্ডে বোর্ডে নাম লেখান অলক।

ক্রিকেটের মক্কা হিসেবে অভিহিত করা হয় ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক ক্রিকেট মাঠ লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডকে। সে মাঠের অনার্স বোর্ডে নাম তোলাকে অনেক বড় সম্মানের হিসেবেই ধরে থাকেন ক্রিকেটাররা। লর্ডসের মতো পাকিস্তানের করাচি ন্যাশনাল স্টেডিয়ামেও রয়েছে অনার্স বোর্ড। যেখানে ওয়ানডে, টেস্ট এবং টি-২০ ফরম্যাটে কোনো খেলোয়াড় সেঞ্চুরি বা পাঁচ উইকেট পেলে তার নাম নথিভুক্ত করা হয়।

দীর্ঘদিন পাকিস্তানে ক্রিকেট বন্ধ থাকলে আবার পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় করাচি অনার্স বোর্ডে নথিভুক্তিকরণ। এই সিরিজে পাকিস্তানের দুই ক্রিকেটার নতুন করে এবং প্রথমবারের মতো লিপিবদ্ধ করেছেন নিজেদের নাম।

তারা হলেন- দলটির অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বাবর আযম এবং পেসার উসমান শিনওয়ারী।সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা- পাকিস্তান সিরিজ থেকে শ্রীলঙ্কার গুনাথিলিকাও নাম তুলেছেন করাচির অনার্স বোর্ডে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here