অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে হারিয়ে চতুর্থবারের মত বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ড

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে জেসন রয়ের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে চতুর্থবারের মত বিশ্বকাপের ফাইনালে পা রাখলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ২২৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে কোন সমস্যাই হয়নি ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের। দুই ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টোর ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় ইংল্যান্ড। বিশেষ করে রয় ছিলেন অত্যন্ত মারমুখি৷ মাত্র ১৭.২ ওভারে ১২৪ রান যোগ করেন এই দুই ওপেনার।

বেয়ারস্টো ৩৪ রান করে ফিরে গেলেও মাত্র ৬৫ বলে ৯ চার ও পাঁচ ছক্কায় ৮৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে ফিরে যান তিনি৷ তবে আম্পায়ার ভুল আউট না দিলে হয়তো সেমিফাইনালে সেঞ্চুরি তুলে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়তেন রয়।

রয় ফিরে গেলে ইংল্যান্ডকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান অধিনায়ক ইয়ন মরগান ও জো রুট। রুট ৪৬ বলে ৪৯ ও মরগান ৩৮ বলে ৪১ রানে অপরাজিত থাকেন। ফলে মাত্র ৩২.১ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌছে যায় ইংল্যান্ড।

এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দুই ইংলিশ ফার্স্ট বোলার জোফরা আর্চার ও ক্রিস ওকসের বোলিংতোপে পরে অস্ট্রেলিয়া৷ মাত্র ২২৩ রানেই শেষ হয় তাদের ইনিংস।মাত্র ১৪ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তারা

তবে চতুর্থ উইকেটে স্টিভেন স্মিথ ও এলেক্স ক্যারির ১০৩ রানের জুটিতে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ক্যারি ৪৬ রান করে ফিরে যাওয়ার পরের ওভারেই শূন্য রানে ফিরে যান স্টইনিজ। একসময় ১৬৬ রানেই ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে অস্ট্রেলিয়া৷ তবে অষ্টম উইকেটে মিচেল স্টার্ককে নিয়ে ৫১ রান যোগ অজিদের স্কোর কোনমতে দু’শো পার করেন স্টিভেন স্মিথ৷ তবে ৮৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে রান আউট হয়ে স্মিথ ফিরে গেলে নিজেদের স্কোরটা আর বেশি বড় করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। শেষ পর্যন্ত ৪৯ ওভারে ২২৩ রানে অল আউট হয় অস্ট্রেলিয়া।

ইংল্যান্ডের ক্রিস ওকস ও আদিক রশিদ ৩ টি ও জোফরা আর্চার ২টি উইকেট লাভ করেন।