দিন শেষে জ্বলে উঠলেন তাইজুল; ৩৮৬ রানে এগিয়ে আছে মুমিনুলরা

ডাঃ কে থিম্মাপায়া স্মৃতি মাল্টি ডে অল ইন্ডিয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্টে একমাত্র সফরকারী দল হিসেবে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বিদর্ভা ক্রিকেট এসোসিয়েশনের বিপক্ষে ৫০০ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে বিসিবি একাদশ। জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ১ উইকেটে ১১৪ রান সংগ্রহ করেছে বিদর্ভা ক্রিকেট এসোসিয়েশন।

জবাব দিতে নেমে ভালো শুরু করেন বিদর্ভার দুই ওপেনার সঞ্জয় ও অক্ষয় কুলহার। ইবাদত-তাসকিনরা বোলিং করেও তাদের জুটি ভাঙতে পারেননি। তবে দিনের শেষে জ্বলে উঠেন তাইজুল। দিনের আর এক ওভার বাকি থাকতে তাদের ১১৪ রানের জুটি ভেঙে বিসিবি একাদশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন। এছাড়া আর কোন সাফল্য ছিল বাংলাদেশের।

এর আগে গোল্ডেন দ্য ওভালে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশকে ভালো সুচনা এনে দেন দুই ওপেনার জহুরুল হক মোহাম্মদ সাইফ হাসান। ১৯ রান করে সাইফের বিদায়ে তাদের ৪৬ রানের জুটি ভাঙে।

পরবর্তীতে ব্যাটিংয়ে নেমে তারুন জুটি গড়েন মমিনুল হক ও জহুরুল। দুজনেই এগুতে থাকেন শতকের দিকে। মমিনুল প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ২১তম শতক তুলে নিলেও ৯৬ রান করে বিদায় নেন জহুরুল। তার বিদায়ে তাদের ১৭৭ রানের জুটির ভাঙন ধরে। পরবর্তীতে মমিনুলের অপরাজিত ১৫৭ আর শান্তর ২৪ রানে ২ উইকেট হেরে ৩০৩ রানে দিন শেষে করে বিসিবি একাদশ।

আজ দ্বিতীয় দিনে খেলতে নেমে বেশিক্ষণ স্হায়ী হতে পারেননি মমিনুল। ব্যক্তিগত ১২ রান যোগ করতেই ১৬৯ রানে বিদায় নেন তিনি। তবে দারুন শতক তুলে নেনে নাজমুল হোসেন শান্ত। অর্ধশতক করেন আরিফল হক। ১১৮ রান করে শান্ত ও ৭৭ রান করে আরিফুল বিদায় নিলে ৭ উইকেটে ১৪৮ ওভার ব্যাটিং করে ৫০০ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে বিসিবি একাদশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বিসিবি একাদশ ৫০০/৭(১৪৮.০ ওভার) মমিনুল ১৬৯, নাজমুল হোসেন শান্ত ১১৮, জহুরুল হক ৯৬, আরিফুল হক ৭৭।
দারশান নালকান্দে ৭৯/৪।

বিদর্ভা ক্রিকেট এসোসিয়েশন ১১৪/১(৩০. ওভার) সঞ্জয় ৪৯, অক্ষয় কুলহার ৬২*।
তাইজুল ১/১৫।