বিশ্বকাপ দলে থাকছেন না তাসকিন; ত্রিদেশীয় সিরিজের পর ভাগ্য নির্ধারন!

আজ ঘোষণা হবে টাইগারদের বিশ্বকাপ দল। যেখানব জায়গা পাচ্ছেননা পেসার তাসকিন আহমেদ। ইনজুরি থেকে মুক্ত হলেও আশানুরুপ ফল না করায় তাকে দলে রাখছেনা নির্বাচকরা। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজে দলে থাকছেন তিনি। সেখান থেকে তার পারফরম্যান্স দেখেই চুড়ান্ত দলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানাবে বিসিবি।

সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। ওই সিরিজে তিন ম্যাচে পেয়েছিলেন মাত্র ২ উইকেট। এরপরই মূলত অনিয়মিত হয়ে পড়েন জাতীয় দলে। এর পেছনে আরেকটি কারণ, চোট।

ঘরোয়া লিগে খেললেও সেভাবে প্রমাণ করতে পারছিলেন না নিজেকে। সবশেষ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠ আসর জুড়ে দুর্দান্ত খেলছিলেন তাসকিন আহমেদ। সিলেট সিক্সার্সের হয়ে খেলে নিয়েছেন ২২টি উইকেট। যে কারণে তাকে ডাকা হয়েছিল নিউজিল্যান্ড সফরের দলেও।

কিন্তু দুর্ভাগ্য পিছু ছাড়েনি তার। বিপিএলে নিজেদের শেষ ম্যাচে চোটে পড়ে আবারও ছিটকে পড়েন তাসকিন। খেলতে হয়নি নিউজিল্যান্ড সিরিজ। অথচ তাসকিনের মতো দেশের ক্রিকেটের সমর্থকরাও আশা দেখেছিলেন, আসন্ন বিশ্বকাপে খেলবেন তিনি।
দীর্ঘ দুই মাসের পূনর্বাসন শেষে তাসকিন ফিরছেন মাঠে। স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন বিশ্বকাপে খেলার। কিন্তু এত সহজে যে বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি সেটা নিজেও জানেন।

দীর্ঘ সময় ধরে আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলে চোট থেকে ফিরে কঠিন সমীকরণের মুখে তার বিশ্বকাপ স্বপ্ন।
আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নাজমুল হাসান কিছুটা স্পষ্ট করেন তাসকিনের বিশ্বকাপে খেলার ব্যাপারে।

পাপন বলেন, তাসকিন তো ইনজুরড। আমরা জানি না সে খেলতে পারবে কিনা, ফর্মে ফিরলে কেমন করবে এইসব তো জানি না। আপনি খুব বেশি নাম পাবেন না। এখন আমরা ১৫ জনের নাম দিয়ে দিচ্ছি। বাট আমরা অপেক্ষা করছি ট্রাই নেশনের। সেখানেই ফাইনাল সিদ্ধান্ত নিব।

পথটা যত কঠিন ভাবা হচ্ছে, তাসকিনের জন্য পথটা একটু সহজও। কেন না সে অভিজ্ঞ। এ নিয়ে পাপন বলেন, এখানে অভিজ্ঞতা একটা বড় রোল প্লে করেই, কিন্তু ফর্মও বড় বিষয়। পজিশনও ভেরি ইম্পরট্যান্ট। দেখা যায় এক পজিশনে অনেক অপশন আছে। আবার আরেক জায়গায় অনেক অপশন নেই। পেস বোলিংয়ে খুব আহামরি বক্তব্য নেই। রুবেল, মাশরাফি, মুস্তফিজ, সাইফউদ্দিন যাচ্ছে, আরেকজন কে, তাসকিন।