সাকিবুল্লাহর কথা মনে আছে তো নিউজিল্যান্ডের?

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজটা বাংলাদেশের জন্য প্রচুর বিষাদময় ছিলো। একপেশে সিরিজে কিউইরা অনায়াসেই হয়াইট ওয়াশ করেছিলো টাইগারদের৷ তবে হিসাবটা যদি করা হয় সর্বশেষ ম্যাচের তবে হাসিটা ফুটবে বাংলাদেশিদের মুখে।


ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শেষবার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড৷ সেখানে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় উইলিয়ামসনরা। সেখানে ২৬৫ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর করে কিউইরা। বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৬৬। তবে এই লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ৩৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ।

স্ট্রাইকে তখন ছিলেন বাংলাদেশের অন্যতম দুই তারকা- সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন সেই স্কোর বোর্ডের পাতাতে তখন রচিত হয় এক অনন্য কাব্য৷ গড়ে উঠে সাকিব + মাহমুদউল্লাহ = সাকিবুল্লাহ জুটি। পঞ্চম উইকেটে এই সাকিবুল্লাহ জুটিতেই উঠে যায় ২২৪ রান৷ যেটি কিনা টুর্নামেন্টটির সেই আসরের সর্বোচ্চ জুটি৷ সাকিব ১১৫ বলে ১১৪ রান করে বোল্ড আউট হয়ে ফিরে গেলে, মাহমুদউল্লাহও সেঞ্চুরি করেন৷ শেষ পর্যন্ত তিনি অপরাজিত থাকেন ১০২ বলে।

নিউজিল্যান্ড হয়তো গত সিরিজের সাফল্যে বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছে। এমনকি দল ঘোষণাতেও প্রথম সারির কিছু ক্রিকেটারকে এক বা একাধিক ম্যাচের জন্য বিশ্রামে পাঠিয়েছে তাঁরা। তবে সদ্য শেষ হওয়া বিপিএল থেকে যাবার সময় তাঁদেরই স্বদেশি সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমানে জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ড্যানি মরিনসন বলে গেছেন যে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন নাকি অনেকটাই ইংল্যান্ডের মতো। আর যদি তাই হয়, তাহলে ইংল্যান্ডে হওয়া শেষ ম্যাচটির কথা হিসাব করলে বাংলাদেশও কিন্তু কম যায়না। সেই সাথে সাকিবুল্লাহ জুটির কথাটাও যে বারবার আসবে উইলিয়ামসনদের মনে!