নাঈমের ক্যারিয়ার সেরা ৮ উইকেটে পূর্বাঞ্চলের বড় জয়

ইস্ট জোন এবং সেন্ট্রাল জোনের মধ্যকার ম্যাচে এক নাঈম হাসানের বোলিং তোপেই ম্যাচ শেষ হয়ে গেল তিন দিনেই। সেন্ট্রাল জোনকে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৩৪ রানেই গুটিয়ে দিয়ে ম্যাচ জিতে নিয়েছে ইস্ট জোন। অধিনায়ক মুমিনুল হক ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলীর সেঞ্চুরিতে মধ্যাঞ্চলকে বড় লক্ষ্য দিয়েছিল পূর্বাঞ্চল।

বিসিএলের ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডে ৩২১ রানে জিতেছে পূর্বাঞ্চল। ৪৫৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় মধ্যাঞ্চল গুটিয়ে গেছে ১৩৪ রানে।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবার বিনা উইকেটে ২ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করা পূর্বাঞ্চল শুরুতেই হারায় ইমরুল কায়েসকে। থিতু হয়ে ফিরেন রনি তালুকদার।

১৭৫ রানের জুটিতে দলকে পথ দেখান মুমিনুল ও ইয়াসির। ১০৬ বলে ৯ চার ও এক ছক্কায় ১০০ রান করা মুমিনুলকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন মোশাররফ হোসেন।

খানিক পর সেঞ্চুরি তুলে নেন ইয়াসির। তার সেঞ্চুরির পরপরই ৩ উইকেটে ২৫৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে পূর্বাঞ্চল। ১০৯ বলে ১০ চার ও দুই ছক্কায় ১০১ রানে অপরাজিত থাকেন ইয়াসির।

৪৫৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অফ স্পিনার নাঈমের ঘূর্ণিতে ৪২.২ ওভারে অলআউট হয়ে যায় মধ্যাঞ্চল।

দলটির ইনিংসে নেই কোনো পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি। দুই অঙ্ক ছোঁয়া ছয় ব্যাটসম্যানের কেউ যেতে পারেননি চল্লিশ পর্যন্ত। সর্বোচ্চ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর ৩৬।

৪৭ রানে ৮ উইকেট নেন নাঈম। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটাই তার সেরা বোলিং। গত অক্টোবরে এনসিএলে চট্টগ্রামের হয়ে ঢাকার বিপক্ষে ১০৬ রানে ৮ উইকেট ছিল তার আগের সেরা।

একটি জায়গায় এখন সবার উপরে এই তরুণ। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অফ স্পিনারদের মধ্যে বাংলাদেশের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড এখন তার। ২০০৫ সালে বরিশালের বিপক্ষে ৬৭ রানে ৮ উইকেট নেওয়া খুলনার জামাল বাবুকে পেছনে ফেললেন নাঈম। একাই প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দিয়ে জিতলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পূর্বাঞ্চল ১ম ইনিংস: ৪২৫

মধ্যাঞ্চল ১ম ইনিংস: ২২৪

পূর্বাঞ্চল ২য় ইনিংস: (আগের দিন শেষে ২/০) ৪৩ ওভারে ২৫৪/৩ ইনিংস ঘোষণা (রনি ২৪, ইমরুল ৮, মুমিনুল ১০০, ইয়াসির ১০১*, জাকির ১৫*; তাসকিন ১/৩৭, আবু হায়দার ০/৩৫, শাহাদাত ১/১৯, মোশাররফ ১/৮৯, মোসাদ্দেক ০/৭০)

মধ্যাঞ্চল ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৪৫৬) ৪২.২ ওভারে ১৩৪ (সাইফ ৩১, পিনাক ০, শান্ত ৩৬, মজিদ ১১, মার্শাল ১৬, মোসাদ্দেক ৭, জাকের ১৩, মোশাররফ ১১, আবু হায়দার ৪, তাসকিন ২*, শাহাদাত ০; তাইজুল ইসলাম ০/৬৪, নাঈম ৮/৪৭, খালেদ ০/১২, আবু জায়েদ ২/৮)

ফল: ৩২১ রানে জয়ী পূর্বাঞ্চল

ম্যান অব দা ম্যাচ: নাঈম হাসান