সাকিব-ডেনলির ব্যাটে কুমিল্লাকে ভালোই জবাব দিচ্ছে ঢাকা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএলে) ৩৪ তম ম্যাচে সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডাইনামাইটসের বিপক্ষে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান তুলেছে তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

এই মাঝারি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দারুণ শুরু করেন ঢাকার দুই ওপেনার জো ডেনলি ও এভিন লুইস। তবে শোয়েব মালিকের করা দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে ৬ রান করা এভিন লুইস লিটন দাসের স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়ে আউট হন।

পাওয়ার প্লে শেষে ঢাকার সংগ্রহ দাঁড়ায় ১ উইকেটের বিনিময়ে ৪৫ রান। তারপর সাদমান ইসলাম ৯ রান করে রান আউটের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন। সাদমানের বিদায়ের পর উইকেটে আসেন ডায়নামাইস অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এই দুজনের ব্যাটেই ৭.৩ ওভারে দলীয় পঞ্চাশ পুরণ হয় ঢাকা ডায়নামাইটসের।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঢাকার সংগ্রহ ৯ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৬৪ রান। ডেনলি ৪০ ও সাকিব ৭ রানে উইকেটে।

এর আগে এই হাইভোল্টেজ ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ঢাকার কাপ্তান সাকিব আল হাসান। ফলে ব্যাটিংয়ে নামেন কুমিল্লার দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। এই দুজনের ব্যাটে দারুন শুরু করে কুমিল্লা।

তামিম ইকবালের মারমুখি ব্যাটিংয়ে মাত্র ৫.৫ ওভারেই দলীয় অর্ধশতক পূরণ হয় কুমিল্লার। পাওয়ার প্লে শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫৪ রানে। তারপর দলীয় ৬০ রানে ৩৭ রান করা তামিমকে মোসাদ্দেকের ক্যাচ বানিয়ে আউট করেন সাকিব আল হাসান।

তারপর দলের হাল ধরেন লিটন-ইমরুল। ৩৪ রান করা লিটনকে জহুরুল ইসলামের স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে আউট করেছেন সাকিব। লিটন ফিরে যাওয়ার পর ইমরুলকে সঙ্গ দিতে আসেন মারলন স্যামুয়েলস।

এই দুজনের ব্যাটে ১৩.৪ ওভারে দলীয় শতক পূরণ হয় কুমিল্লার। ২৬ রান করা ইমরুল কায়েস কেভিন কুপারের বলে পোলার্ডের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেছেন।

ইমরুল আউট হলে , জস বাটলারকে সঙ্গে নিয়ে রান বাড়াতে থাকেন স্যামুয়েলস। দলীয় ১৪৪ রানে স্যামুয়েলসের উইকেট হারায় কুমিল্লা। ৩৯ রান করে তিনি কেভন কুপারের বলে ডেনলির হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন।

তারপর ৪ রান করা বাটলারকেও পোলার্ডের ক্যাচ বানিয়ে আউট করেছেন কুপার। ৬ রান করে ডুয়াইন ব্রাভো হয়েছেন রান আউটের শিকার। নির্ধারিত ২০ ওভারে শোয়েব মালিকের অপরাজিত ৯ রান ও হাসান আলীর ৮ রানে ভড় করে ৬ উইকেটে ১৬৭ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স