দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছেন নেইমার

বার্সেলোনার সবার চাওয়া এখন যেন একটাই-তাদের সঙ্গেই থাকুক নেইমার। কিন্তু তিনি নিজে কি চান? জেরার্দ পিকে জানালেন, এখনও সিদ্ধান্ত নেননি ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। কি করবেন, নেইমার নিজেও জানেন না।

পিএসজি বাই আউট ক্লজের ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো দিয়ে হলেও নেইমারকে নিতে প্রস্তুত বলে গণমাধ্যমে আসছে। ব্রাজিলের কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ফরাসি ক্লাবটিতে যেতে রাজি নেইমার।

ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলতে বর্তমানে দলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন নেইমার। তার দল বদলের সম্ভাবনা নিয়ে জোর আলোচনা চললেও তিনি নিজে এ বিষয়ে একেবারে চুপ।

এ প্রসঙ্গে পিকে বলেন, “নেইমার ও আমি খুব ঘনিষ্ঠ। আমি চাই, সে থাকুক এবং আমি পরিস্থিতি সম্পর্কে জানি। এই মুহূর্তে সে জানে না, কি করতে হবে। আমরা তাকে সাহায্য করার চেষ্টা করছি।”

গত রোববার ফেইসবুকে ও টুইটারে নেইমারের সঙ্গে একটি ছবি দিয়ে পিকে লিখেছিলেন, ‘সে থাকছে’। এতে অনেকের মনে ধারণা জন্মে, পিএসজির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে দিয়েছেন নেইমার। পরে অবশ্য এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার জানান, এমনটা তার মনে হয়েছিল। আর এবার জানালেন, সতীর্থকে এখানে থেকে যেতে কিছুটা জোর দেওয়ার জন্যে টুইটটা করেছিলেন তিনি।

“আমরা দেখবো। টুইটটা ছিল তাকে থেকে যেতে চাপ দেওয়ার জন্য। আমি চাই সে থাকুক।”
তবে সবকিছুর পরে পুরো বিষয়টা আসলে নেইমারের উপরই নির্ভর করছে। বার্সেলোনা সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউ সিদ্ধান্তের ভারটা তার ওপরই ছেড়ে দিয়েছেন। এবার পিকেও ঠিক তেমনটাই বললেন।

“সে কি চায়, এটা তার উপর নির্ভর করছে। সে বিশ্বের সব ক্লাবে খেলতে পারে। সে প্যারিস, বার্সেলোনা, চেলসি অথবা সিটিতে খেলতে পারে। সব ক্লাবই তাকে চাইবে। এটা আপনার কাছে অগ্রাধিকারের বিষয়। আপনি কি চান? আপনি আরও অর্থ চান? আপনি কি শিরোপা জিততে চান?”

দল বদলের জোরালো গুঞ্জনের মাঝে নেইমারের পারফরম্যান্সে অবশ্য কোনোরকম বিরূপ প্রভাব পড়েনি। প্রস্তুতিমূলক এই টুর্নামেন্টে এ পর্যন্ত দুই ম্যাচে কাতালান ক্লাবটির করা তিন গোলের সবকটিই তার।

পরের ম্যাচে বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল ছয়টায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা।