বিপিএল: এক রাতেই বদলে গেল ফিকশ্চার

আগেই দু’দফা পেছানো হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ (বিপিএল)। শেষ মুহূর্তে এসেও নাটকের জন্ম দেয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

নতুন দিনক্ষণ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার লীগ মাঠে গড়ানোর কথা। সে অনুযায়ী আগের দিন লীগের প্রথম পর্বের ফিকশ্চার প্রকাশ করে বাফুফে। কিন্তু ২৪ ঘণ্টা না যেতেই ফিকশ্চারে পরিবর্তন! এমন নাটকীয়তার মধ্য দিয়েই বৃহস্পতিবার মাঠে গড়াচ্ছে বিপিএল।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকেল ৪টা ৩০ মিনিটে একমাত্র ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর মুখোমুখি হবে নবাগত সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।

নতুন মৌসুমের প্রথম টুর্নামেন্ট ফেডারেশন কাপ শেষ হয়েছে প্রায় দু’মাস আগে। গেল ৬ জুন এ টুর্নামেন্টের ফাইনাল শেষে দীর্ঘ বিরতিতে ফের উৎসবমুখর হয়ে উঠছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম।

ঢাকা আবাহনী ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ম্যাচ দিয়ে মাঠে গড়াচ্ছে এবারের লীগ।

যদিও প্রথমদিনেই আরেক ম্যাচে ঢাকা মোহামেডানের প্রতিপক্ষ ছিল শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। কিন্তু হঠাৎ লীগ শুরুর আগের দিন বেঁকে বসে শেখ জামাল।

উদ্বোধনী দিনে তারা খেলতে নারাজ। এ ব্যাপারে লীগ কমিটিকে চিঠি দিয়েছে ক্লাবটি। তাদের চিঠির গুরুত্ব দিয়ে ত্বরিত সিদ্ধান্ত নিয়েছে লীগ কমিটি। বদলে দিয়েছে আগের ফিকশ্চার। নতুন ফিকশ্চার অনুযায়ী প্রথমদিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে টিম বিজেএমসি ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

এবারের লীগের দুটি ভেন্যু হল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এবং চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম। তবে অবিরাম বৃষ্টি আর বন্যায় শোচনীয় অবস্থা চট্টগ্রামের। তাই লীগের প্রথম পর্বের ৬৬ ম্যাচের মধ্যে ৬১টি রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে।

ঢাকায় টানা চারদিনের বৃষ্টিতে এই স্টেডিয়ামের মাঠ যদিও তেমন একটা সুবিধাজনক অবস্থায় নেই। তারপরও মন্দের ভালো। এখানেই প্রত্যেকদিন দুটি করে ম্যাচ হবে। ১২ দলের লীগের প্রতি রাউন্ডে ছয়টি করে ম্যাচ। বাফুফের ফিকশ্চার অনুযায়ী প্রথম পর্ব শেষ হওয়ার কথা ২০ সেপ্টেম্বর।

বৃষ্টির কারণে বেশক’দিন পুরোদমে অনুশীলন করতে পারেনি ঢাকা আবাহনী। বৃহস্পতিবার তারা দীর্ঘসময় অনুশীলন সারে।

ধানমণ্ডিতে নিজেদের মাঠে শিষ্যদের নিয়ে শেষ মুহূর্তের অনুশীলনে ব্যস্ত দেখা গেছে আবাহনীর ক্রোয়েশিয়ান কোচ দ্রাগো মামিচকে। ফেডারেশন কাপে সাইফ স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেছিল তার দল। সেই ফলাফল মাথায় রেখে কোচ মামিচ ছেলেদের প্রস্তুত করছেন। শুরুর ম্যাচ নিয়ে মামিচের কথা, ‘ওটা ছিল মৌসুম শুরুর ম্যাচ। মাঝে আমরা অনেক ম্যাচ খেলেছি। ফেডারেশন কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। এ মুহূর্তে আমার দল দারুণ একটা জায়গায় আছে। আশা করছি, জয় দিয়ে লীগ শুরু করতে পারব।’

গত মৌসুমে আবাহনীকে লীগ শিরোপা এনে দেয়ার অন্যতম কারিগর ছিলেন ইংলিশ প্লেমেকার লি টাক। তাকে ধরে রাখা যায়নি। আরিফ, তপু বর্মণরা দল ছাড়ায় রক্ষণভাগও শক্তি হারিয়েছে। জুয়েল, হেমন্তরা না থাকায় ক্ষতিগ্রস্ত মাঝমাঠও। যদিও নাসির উদ্দিন, রায়হান, ইয়ামিন, রুবেল মিয়া, সোহেল রানাদের এনে সেই ঘাটতি পূরণ করা গেছে। বিশেষ করে রুবেলকে চট্টগ্রাম আবাহনী থেকে আনতে পারা ঢাকা আবাহনীর জন্য বড় পাওয়া। সমস্যা যা একটু মাঝমাঠ নিয়ে। তবে লি টাকের অভাব ঢাকার মাঠের পরিচিত ফুটবলার শেখ জামাল থেকে আসা ল্যান্ডিং ডারবোয়ে পূরণ করতে পারবেন বলে বিশ্বাস তাদের।

এদিকে ফেডারেশন কাপের ব্যর্থতাকে পাশ কাটিয়ে এবারের লীগ সাইফ, আবাহনী, শেখ জামাল, শেখ রাসেলেকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছে। আর এতে তারা প্রথম শিকার করতে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।

ইংলিশ কোচ কিম্বলি গ্রান্টকে এ চ্যালেঞ্জে সাহস জোগাচ্ছেন সাইফ স্পোর্টিংয়ে যোগ দেয়া ডিফেন্ডার আরিফুল ইসলাম, হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস, তপু বর্মণ, শাকিল আহাম্মেদ, জুয়েল রানা ও শেখ রাসেল থেকে আসা জামাল ভূঁইয়া। চ্যাম্পিয়নশিপ লীগে খেলা মতিন মিয়াও তাদের বড় শক্তি। এদের নিয়ে লীগে জয় দিয়ে শুরু করতে চান দলটির কোচ।