সৌম্য-মিরাজ-ফিজ দের কাঁধে নিরাপদ থাকবে বাংলাদেশ ক্রিকেট – আশাবাদী মাশরাফি

তামিম ইকবাল হতে চেয়েছিলেন, বিশ্বের সেরা ওপেনারদের একজন। গত তিন বছরে সেই স্বপ্নও পূর্ণ হয়েছে। সাকিব-তামিমদের ব্যক্তিগত স্বপ্ন গুলোই বাংলাদেশের ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

মাঝে মাঝে প্রশ্ন উঠে, এই স্বপ্নবাজ ক্রিকেটারদের একদিন ব্যাট-প্যাড তুলে রাখতে হবে। তখন কি দেশের ক্রিকেট থমকে যাবে? উন্নতির ঊর্ধ্বগামী গ্রাফ কি নিচু হয়ে আসবে?
দেশের ক্রিকেটের প্রবাদপুরুষ মাশরাফি বিন মুর্তজা পুরো ব্যাপারটিকে ভিন্ন চোখে দেখেন। তার বিশ্বাস, সাকিব-তামিম-মুশফিকদের কাছ থেকে তরুনদের এখনো অনেক শেখার বাকি।


মাশরাফি

এখনকার সিনিয়রদের বিদায় নেয়ার সময় দলের তরুন ক্রিকেটাররা অভিজ্ঞ ক্রিকেটার পরিনত হবে। বাংলানিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে মাশরাফি বলেছেন,
‘দেখবেন তখন আবার এমন ৫ জন দাঁড়িয়ে যাবে। এটা হচ্ছে একটা চলমান প্রক্রিয়া, যার মধ্য দিয়েই আপনাকে সব সময় যেতে হবে। হয়তোবা একসাথে সবাই গেলে তখন দলের অবস্থা একটু কঠিন হয়ে যাবে। কিন্তু ওরা আরো ৫-৬ বছর ক্রিকেট খেলবে, আমি বাদে।
সাকিব, তামিম, মুশফিক, রিয়াদের নুন্যতম পাঁচ থেকে ছয় বছর খেলার মতো সামর্থ্য আছে। ওইটা যদি ওরা খেলতে পারে, এর মধ্যে সৌম্য, মিরাজ, তাসকিন, মুস্তাফিজের ক্যারিয়ারের বয়স হয়ে যাবে ৮-৯ বছর। তখন ওরাই সিনিয়র হয়ে যাবে এবং দায়িত্ব নিতে শুরু করবে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে কোন দলেরই পারফর্মেন্স অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের বিদায়ে উঠানামা করে। বড় দল গুলোও এমন পরিস্থতির মধ্যে দিয়ে যায়।