ভারতের ৬০০ রানের জবাবে ফলোঅনের শংকায় শ্রীলংকা

স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়েছে ভারত। সফরকারী দলটি ৬০০ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করায়। জবাবে শ্রীলঙ্কা খুব একটা সুবিধা করতে পারছে না। দ্বিতীয় দিন শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান তুলেছে। তারা এখনো পিছিয়ে ৪৪৬ রানে। তাই ফলোঅনের শঙ্কা জেগে উঠেছে স্বাগতিক দলটির সামনে।

আজ বৃহস্পতিবার গল টেস্টে প্রতিপক্ষের বড় সংগ্রহের জবাবে শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায়, দলীয় ৭ রানেই বিদায় নেন ওপেনার করুনারত্নে। এলবিডাব্লিউ হয়ে ফেরেন তিনি। এই ধাক্কা সামলে উপুল থারাঙ্গা ও গুনাথিলাকা কিছুটা চেষ্টা করছিলেন, কিন্তু তাঁরাও পারেননি। ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামি লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের সামনে বড় বাধা হয়ে দাঁড়ান।

এরপর পাঁচ উইকেট হারিয়ে দিন শেষ করে স্বাগতিকরা। সাবেক অধিনায়ক ম্যাথুস ৫৪ রানের ও দিলুরুয়ান পেরেরা ৬ রানে অপারজিত রয়েছেন।

এর আগে প্রথম দিনের তিন উইকেটে ৩৯৯ রান নিয়ে আজ দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ভারত। দিনের শুরুতেই ১৪৩ রানে অপরাজিত থাকা পুজারাকে ফেরত পাঠান নুয়ান প্রদীপ। আজ মাত্র ৯ রান যোগ করতে সক্ষম হন পুজারা। আর আগের দিন ৩৯ রানে অপরাজিত থাকা রাহানে আউট হন ৫৭ রান করে।

এরপর ঋদ্ধিমান সাহা ফিরে যান ১৬ রান করে। ভালো ব্যাটিং করছিলেন অশ্বিন। তবে প্রদীপের বলে হুক করতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৪৭ রান করেন এই অলরাউন্ডার। অপর অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা আউট হন ১৫ রান করে।

একটা সময় মনে হচ্ছিল, ভারতের রান বোধ হয় সাড়ে পাঁচশও হবে না। তবে সেখান থেকে দারুণ ব্যাটিং করে দলকে ৬০০ রানে পৌঁছে দেন অভিষিক্ত হার্দিক পান্ডিয়া। তাঁকে দারুণ সঙ্গ দেন মোহাম্মদ শামি ও উমেশ যাদব। হার্দিক ৫০ রান করে আউট হন। পেসার শামি ৩০ ও উমেশ যাদব ১১ রান করেন। শ্রীলঙ্কার নুয়ান প্রদীপ ১৩২ রানে নেন ছয় উইকেট। এ ছাড়া লাহিরু কুমারা পান তিন উইকেট।