ধাওয়ানের ব্যাটে আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ক্রিকেটার!

গলে সফরকারী ভারতের বিপক্ষে প্রথম দিন শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। প্রথমদিনে নিজেদের শক্তিমত্তা দেখায় ভারত। শ্রীলঙ্কান বোলারদের বিপক্ষে ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ৯০ ওভারে ৩৯৯ রান সংগ্রহ করে কোহলিবাহিনী।

আজ বুধবার (২৬ জুলাব) টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। খেলার ১৪তম ওভারে লাহিরুর বলটি প্রতিরোধে দাঁড়িয়েছিলেন ওপেনার শিখর ধাওয়ান। কিন্তু তার বল ঠিক মতো ব্যাট স্পর্শ করাতে ব্যর্থ হন শিখর। সেটি এজ হয়ে যায় দ্বিতীয় স্লিপে। তখন বলটি তালুবন্দীর প্রয়াস চালান গুনারত্নে। তবে তা গিয়ে আঘাত হানে তার বাম বুড়ো আঙুলে। তাৎক্ষণিকভাবে মাঠেই তীব্র ব্যথায় কঁকিয়ে ওঠেন গুনারত্নে। অবস্থা ভালো না হওয়ায় মাঠ থেকে তাকে নেয়া হয় কলম্বোর হাসপাতালে। সেখানে বিশেষজ্ঞ দেখানোর পরই করণীয় ঠিক করা হবে। প্রাথমিকভাবে বলা হচ্ছে, আঙুল ফেটে গেছে তার।

এরফলে তার ছিটকে যাওয়ায় বড় ধাক্কাই খেতে হলো শ্রীলঙ্কাকে। স্লো বোলিং ছাড়া ব্যাটিংয়েও দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন তিনি। গত সপ্তাহে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রেকর্ড জয়ে চতুর্থ ইনিংসে ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, এদিন ভারতীয় ব্যাটসম্যান শিখর ধাওয়া দুর্দান্ত এক রেকর্ড গড়েন। যাতে ভঙ্গ হয় ৫৫ বছরের পুরনো এক রেকর্ড। শ্রীলঙ্কার বোলারদের ওপর দিয়ে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে ধাওয়ান ভেঙে দিয়েছেন ৫৫ বছরের পুরনো এক রেকর্ড। দ্বিতীয় সেশনে ভারতীয় কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান তোলার রেকর্ডটি এখন শুধু তারই।

আরেকটু হলে তো ভারতীয় কোনো ব্যাটসম্যানের যেকোনো সেশনে সর্বোচ্চ রান তোলার রেকর্ডটিও নিজের করে নিতে পারতেন ধাওয়ান। ২০০৯ সালে ব্রাবোর্নে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই এক সেশনে ১৩৩ রান তুলে ভারতীয় রেকর্ড গড়েছিলেন দেশটির সর্বকালের সেরা ওপেনারদের একজন, বীরেন্দর শেবাগ।

চলতি গল টেস্টে দ্বিতীয় সেশনে ১২৬ রান তুলেছেন ধাওয়ান। দ্বিতীয় সেশনে ভারতীয় কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান তোলার রেকর্ডটি ছিল এতদিন পলি উমরিগরের। ১৯৬২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পোর্ট অব স্পেনে ১৭২ রানের ইনিংস খেলার পথে এই রেকর্ড গড়েছিলেন মিডল অর্ডার এই ব্যাটসম্যান। তাকে ছাড়িয়ে যাওয়া ধাওয়ান শেষ পর্যন্ত আউট হয়েছেন ১৯০ রানে।