মাঠ থেকে সরিয়ে নেয়া হলো নিষিদ্ধ সাকিবের বিজ্ঞাপন

জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করার অভিযোগে গেল বছরের অক্টোবরে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হন সাকিব আল হাসান। মাঠের খেলায় না থাকলেও জনপ্রিয়তায় একটুও ভাটা পড়েনি এই তারকা অলরাউন্ডারের। তাইতো আগের মতোই বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সাকিব আল হাসানকে দিয়ে নিজেদের পণ্যের প্রচারণা চালাচ্ছে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের পোস্টারবয় খ্যাত সাকিব নিষেধাজ্ঞার সময়েও একের পর এক পণ্যের বিজ্ঞাপনে মডেল হচ্ছেন। সোশ্যাল মার্কেটিং কোম্পানি (এসএমসি) শুভেচ্ছা দূত করে সাকিবকে,যথারীতি এসএমসির বিজ্ঞাপনে মডেলও হয়েছেন তিনি। কিন্তু সাকিবের ছবি সংবলিত বিজ্ঞাপনের ব্যানার চলমান বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টেস্ট ম্যাচে ব্যবহার করার ফলেই বাঁধে বিপত্তি। বিষয়টিকে ‘স্পর্শকাতর’ বিবেচনায় ব্যানারগুলো সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

এসএমসির বিজ্ঞাপনে সাকিবে,যেটি শোভা পাচ্ছিলো চলমান বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টেস্টে

ম্যাচ চলাকালীন সময় মাঠের পাশে বসে ছবি তোলেন বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের ফটোগ্রাফাররা। তাদের রোদ থেকে রেহাই দিতে সেখানে বিশাল আকৃতির ছাতার ব্যবস্থা রাখা হয়। ওই ছাতাগুলো তৈরিতে ব্যবহৃত ব্যানারে ছিলো সাকিবের ছবি সংবলিত এসএমসির বিজ্ঞাপন। প্রথম দুই দিন সেগুলোও টেলিভিশন পর্দাতেও দেখা যায়। তবে তৃতীয় দিনে (আজ) বিসিবির নজরে আসলে মাঠ থেকে সাকিবের ছবি সংবলিত সকল বিজ্ঞাপনের ব্যানার সরিয়ে ফেলা হয়।

এ প্রসঙ্গে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামুদ্দিন চৌধুরী বলেন, “মূল ব্যাপারটা হচ্ছে একটা স্পর্শকাতর কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ সাকিব, তাই না। যেহেতু আইসিসি কমিটমেন্টের একটা ম্যাচ এবং এটা সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছে । বিষয়টা একটু স্পর্শকাতর। আমরা মনে করেছি এই সময়টায় আসলে এটা উপেক্ষা করাই ভালো।”

উল্লেখ্য, এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞাসহ দুই বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ সাকিব মাঠে ফিরতে পারবেন চলতি বছরের ২৯ আক্টোবরে।