লিপজিগে কুপোকাত টটেনহ্যাম

যোগ্যতম দল হিসেবেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জার্মান জায়ান্ট আরবি লিপজিগ। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে ইংলিশ জায়ান্ট টটেনহ্যাম হটস্পারকে ন্যূনতম গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে তারা।

চোট জর্জর প্রিমিয়ার লিগের দলটিকে ম্যাচের শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণে কোণঠাসা করে ফেলে লিপজিগ। দ্বিতীয় মিনিটে এগিয়েও যেতে পারতো তারা; তবে টিমো ওয়ার্নারের শট প্রতিহত হওয়ার পর এঞ্জেলিনোর ফিরতি শটও ফিরে আসে পোস্টে বাধা পেয়ে।

৩৬তম মিনিটে সতীর্থের পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে আবারও অতিথিদের হতাশ করেন জার্মান ফরোয়ার্ড ওয়ার্নার।

৫৮তম মিনিটে অবশেষে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায় লিপজিগ। ডি-বক্সে অস্ট্রিয়ার মিডফিল্ডার কনরাড লাইমারকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন ডিফেন্ডার বেন ডেভিস, পেনাল্টি পায় সফরকারীরা। নিচু স্পট কিকে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ওয়ার্নার। আসরে তার গোল হলো ৪টি, মৌসুমে ২৬টি।

পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো। কিন্তু ফাঁকায় বল পাওয়া চেক রিপাবলিকের ফরোয়ার্ড পাত্রিক শিকের জোরালো শট ঝাঁপিয়ে রুখে দেন গোলরক্ষক উগো লরিস।

৭৩তম মিনিটে সমতায় ফিরতে পারতো টটেনহ্যাম, তবে জিওভানি লো সেলসোর ফ্রি-কিক অসাধারণ নৈপুণ্যে রুখে দেন গোলরক্ষক পেতার গুলাসি। বল আঙুল ছুঁয়ে পোস্টের বাইরের কানায় লাগে। শেষ দিকে স্বাগতিকদের আরেকটি দুরপাল্লার প্রচেষ্টা হাঙ্গেরির এই গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ঠেকালে জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে লিপজিগ।

ফিরতি লেগে ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে আগামী ১০ মার্চ লাইপজিগের মাঠে খেলবে জোসে মরিনিয়োর টটেনহ্যাম।