হ্যাল্যান্ড ঝড়ে বিধ্বস্ত পিএসজি

চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলোর ম্যাচে জয় পেয়েছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। ঘরের মাঠে ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়ন পিএসজিকে ২-১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে তারা।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শুরু থেকে জমে ওঠা লড়াইয়ের ২৭তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো স্বাগতিক বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। কিন্ত ডি-বক্সে ঢুকে ইংলিশ মিডফিল্ডার জেডন স্যানচোর নেওয়া কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক কেইলর নাভাস।

আট মিনিট পর আরেকটি ভালো সুযোগ পেয়ে জোরালো শটে পাশের জাল কাঁপান জানুয়ারির দলবদলে ডর্টমুন্ডে আসা হ্যাল্যান্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম পাঁচ মিনিটে দুবার প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভীতি ছড়ায় ডর্টমুন্ড; কিন্তু শেষে তালগোল পাকিয়ে সুযোগ হাতছাড়া করে তারা। পাল্টা আক্রমণে ৬৪তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় পিএসজি। তবে গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে হতাশ করেন এমবাপে।

৬৯তম মিনিটে সাফল্যের দেখা পায় ম্যাচ জুড়ে দাপুটে ফুটবল খেলা ডর্টমুন্ড। গেররেইরোর শট প্রতিপক্ষের পায়ে লেগে গোলমুখে বল পেয়ে যান হ্যাল্যান্ড। ঠাণ্ডা মাথায় আলতো টোকায় গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন নরওয়ের এই স্ট্রাইকার।

৭৫তম মিনিটে এমবাপের বাড়ানো বল গোলমুখে পেয়ে অনায়াসে জালে ঠেলে দেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার।

৭৭তম মিনিটে আবারও হ্যাল্যান্ড ম্যাজিক। সতীর্থের পাস প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ২২ গজ দূর থেকে বুলেট গতির শটে দলকে আবারও এগিয়ে নেন ১৯ বছর বয়সী স্ট্রাইকার। ডর্টমুন্ডের হয়ে সাত ম্যাচে তার গোল হলো ১১টি।

আগামী ১২ মার্চ ঘরের মাঠে ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে ফিরতি লেগের লড়াইয়ে নামবে পিএসজি।