আম্পায়ার আর বিকেএসপির উইকেট হতাশ করলো মুগ্ধ-শরিফুলদের

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি পেসাররা। তবে দিনটা হলেও হতে পারতো অন্যরকম। যদি না দিনের শুরুতেই ভুলটা করতেন না আম্পায়ার।

গতিময় পেসার মুগ্ধর বল যখন দিনের শুরুতেই লকগলো কাসুজার ব্যাটে তখন উৎসবে মেতেছিলেন আকবররা। বল ও ব্যাটের স্পর্শে যে শব্দ হয় সেটি স্পষ্টই শোনা গেছে মাঠের বাইরে থেকেও! কিন্তু দুই আম্পায়ার অবাক করে নট আউট দিয়ে দেন। আর শুরুতেই ‘জীবন’ পাওয়া ডানহাতি ওপেনার কাসুজা ঠিকই খেলে গেছেন ৭০ রানের ইনিংস।

অন্যদুই পেসার শরিফুল ইসলাম, সুমন খানও খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। শরিফুলের বলে একবার সুযোগ আসলেও হাতছাড়া করেন অধিনায়ক। শরিফুল ১৫ ওভার বল করে নিয়েছেন একটি উইকেট। সুমন ১৩ ওভার করে থেকেছেন উইকেটহীন। দিনের খেলা শেষে শরিফুল বললেন, ‘প্রথম ওভারেই মুগ্ধ উইকেটটি পেয়ে গেলে দিনের চিত্র অন্যরকমও হতে পারত। তখন আরও কয়েকটা উইকেট নেয়ার সুযোগ হয়ত আসত।’

পেসার শরিফুল আরো বললেন, ‘সাউথ আফ্রিকায় বাউন্সি উইকেটে খেলে আসার পর এমন উইকেটে বোলিং করা কঠিন। বাড়তি জোর খাটাতে হয়। উইকেটে পেসারদের জন্য কিছুটা সহায়তা রাখা হলে সেটি হয় উপভোগ্য।’