১০৩ রানের বিশাল জয়ে রুপগঞ্জের শিরোপার অপেক্ষা বাড়ালো আবাহনী

2018

ডিপিএলের সুপার লিগের অলিখিত ফাইনাল ম্যাচে সৌম্যের ঝড়ো সেঞ্চুরি আর মিথুনের অর্ধশতকে রুপগঞ্জের বিপক্ষে ডিপিএলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৭৮ রানের রেকর্ড গড়ার পর তাদেরকে ২৭৫ রানে আটকে দিয়ে ১০৩ রানের বিশাল জয় তুলে নিয়েছে আবাহনী। আর এ হারের পর শিরোপার জন্য আরো এক ম্যাচের অপেক্ষা বাড়লো রুপগঞ্জের।

৩৭৮ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিদারুণ হতাশায় শুরু হয় রূপগঞ্জের ইনিংস। মাশরাফি, মিরাজদের তোপে দলীয় ৮৬ রানেই হারায় টপ অর্ডারের ৫ ব্যাটসম্যানকে। মেহেদি মারুফ ১০, মুমিনুল হক ৪, নাইম ইসলাম ২০, জাকের আলী ৩ ও শাহরিয়ার নাফিস ড্রেসিং রুমে পথ ধরেন ২ রানে।

তবে দলটির হয়ে একাই লড়েছেন ওপেনার মোহাম্মদ নাইম। ১১৮ বল খেলে অপরাজিত ছিলেন ১১১ রানে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতে তাকে সঙ্গ দিয়েছেন পেসার মোহাম্মদ শহীদ। ৪২ বলে তার অবিশ্বাস্য অপরাজিত ৫১ রানে ৭ উইকেটে বিনিময়ে ২৭৫ রানের সংগ্রহ পায় আফতাব আহমেদের শিষ্যরা।

উইকেট শিকারে আবাহনীর হয়ে দাপট দেখিয়েছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। একাই ফিরিয়েছেন রূপগঞ্জের ৩ ব্যাটসম্যানকে। বাকি চার শিকারের ২টি মাশরাফি বিন মুর্ত্তজা ও ১ টি করে শিকার করেছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

বিশ্বকাপ দল ঘোষণা পর থেকে আলোচনায় সৌম্য সরকার। চলতি ডিপিএলে রানের মধ্যে নেই এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু সঠিক সময়েই জ্বলে উঠেছে তার ব্যাট। অলিখিত ফাইনালে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জের বিপক্ষে মাঠে নামে আবাহনী।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ঝড়ো শুরু করে আবাহনী ওপনার জহুরুল হক ও সৌম্য সরকার। ক্রিজে নেমেই প্রতিপক্ষ বোলারদের উপর চাপে রাখেন সৌম্য। তুলে নেন ৩৯ বলে ফিফটি। তার সাথে যোগ্য সঙ্গ দিচ্ছেন জহুরুল।

এরপর আরও ভয়ংকর রূপ ধারণ করে এই ব্যাটসম্যান। নাবিল ও তাসকিনের বলে চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছড়িয়ে সেঞ্চুরির দিকে এগিয়ে যেতে থাকে তিনি।

অপর প্রান্তে দারুন ব্যাট করে অর্ধশতক তুলে নেন জহুরুল। জহুরুলের অর্ধশতকের পর নাবিলের করা শেষ বলেই সিঙ্গেল নিয়ে সেঞ্চুরি পূন্য করেন সৌম্য। ৭১ বল খেলে ১৪টি চার ও ২টি ছয়ে এই ঝড়ো সেঞ্চুরি উপহার দেন তিনি। কিন্তু এরপরই ১০৬ রান করে বিদায় নেন।

পরবর্তীতে ৭৫ করে ফিরে গেলে মিথুনের ৩৪ বলে ৬৫ রানের ব্যাটিং ঝড়ে ৭ উইকেট হেরে ৩৭৭ রানের বিশাল পুজি গড়ে আবাহনী। যা ডিপিএলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর। এর আগের দুই সর্বোচ্চ স্কোরও অবশ্য আবাহনীর দখলেই।

রুপগঞ্জের হয়ে তাসকিন ও শহীদ সর্বোচ্চ ২ টি করে উইকেট নেন।