সুযোগ পেয়েই ডি মারিয়ার জোড়া গোল; সেমিতে পিএসজি

108

নিয়মিত প্রথম একাদশে জায়গা মেলে না। তবে সুযোগ পেয়েই জ্বলে উঠলেন আনহেল দি মারিয়া। আর্জেন্টাইন উইঙ্গারের জোড়া গোলে মার্সেইকে হারিয়ে ফরাসি কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছে পিএসজি।

বুধবার রাতে ঘরের মাঠে শেষ আটের ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতেছে প্যারিসের ক্লাবটি। আরেক গোলদাতা এদিনসন কাভানি। গত রোববার লিগ ওয়ানে দলটিকে একই ব্যবধানে হারিয়েছিল উনাই এমেরির শিষ্যরা।

পায়ে চোট পেয়ে লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে পড়া নেইমারসহ গত ম্যাচে খেলা দলের মোট আটজনকে ছাড়া খেলতে নামে পিএসজি। তবে তাতে মোটেও ভাবনায় পড়তে হয়নি তাদের।

পুরো ম্যাচে প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ সময় বল দখলে রাখা পিএসজি আক্রমণেও এগিয়ে ছিল। বিরতির ঠিক আগে তাদের গোলের অপেক্ষা শেষ হয়। ইউলিয়ান ড্রাক্সলারের পাস পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দি মারিয়ার জোরালো শট এক জনের পায়ে লেগে সামান্য দিক পাল্টে পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ায়।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে আরেকটি সৌভাগ্যপ্রসূত গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন দি মারিয়া। বাঁ-দিক থেকে ইউরির বাড়ানো ক্রস ছয় গজ বক্সের মুখে অতিথিরা ঠেকাতে ব্যর্থ হলে পেয়ে যান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। তার শট জাপানিজ ডিফেন্ডার হিরোকি সাকাইয়ের গায়ে লেগে জালে জড়ায়।

৮১তম মিনিটে পিএসজির জয় নিশ্চিত করা গোলটি দারুণ পাসিং ফুটবলের ফল। মার্কো ভেরাত্তির বাড়ানো বল ড্রাক্সলার হেডে দেন অরক্ষিত কাভানিকে। আর দারুণ হাফ ভলিতে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ছন্দে থাকা উরুগুয়ের স্ট্রাইকার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হওয়ার আগে ঘরোয়া ফুটবলে মার্সেইয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচে অনুপ্রেরণা খোঁজার কথা জানিয়েছিলেন উনাই এমেরি। দুর্দান্ত দুটি জয়ে সে লক্ষ্য পূরণ হলো।

আগামী ৬ মার্চ নিজেদের মাঠেই ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতায় শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে রিয়ালের মুখোমুখি হবে পিএসজি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here