শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ‘পেইন কিলার’ নিয়ে খেলেছেন ম্যাচসেরা সাকিব

গতকাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাওয়া জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চান্স পাওয়ার দৌড়ে টিকে আছে বাংলাদেশ। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে ফিল্ডিং করার সময় আঘাত পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। পরে পেইন কিলার খেয়ে ব্যাটিং করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। এবার জানা গেল চোট গুরুতর হওয়ায় প্রায় মাস খানেক মাঠের বাইরে থাকতে হবে এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডারকে।

চোট পাওয়ার পরও নিজের বোলিং কোটা পূর্ণ করেছেন সাকিব। যেখানে ২ উইকেট শিকারও করেছেন। এরপর ব্যাট হাতে খেলেছেন ৮২ রানের দারুণ এক ইনিংস। যা দলের জয়ে বড় অবদান রেখেছে। সাকিবের ইনজুরি নিয়ে জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজীদুল ইসলাম বলেন, ‘ইনিংসের শুরুতে সাকিব তার বাঁ হাতের তর্জনীতে আঘাত পায়। পরে হাতে টেপ পেঁচিয়ে ও পেইন কিলার (ব্যথা নাশক) খেয়ে সে ব্যাটিং চালিয়ে গিয়েছিল।’

‘পরবর্তীতে ম্যাচ শেষে দিল্লিতে তার হাতে জরুরি এক্স-রে করা হয়। যেখানে নিশ্চিত হয় তার বাঁ হাতের পিপ জয়েন্টে চিড় ধরেছে। সুস্থ হতে সাকিবের তিন থেকে চার সপ্তাহ লাগবে। আজকেই পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু করতে দেশে ফিরে যাচ্ছেন সাকিব’– যোগ করেন তিনি।

ফলে বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে অধিনায়ককে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। আগামী ১১ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টজুড়ে বড় ইনিংস খেলতে না পারা সাকিব গতকালই আসরের প্রথম ফিফটি পেয়েছিলেন। অলরাউন্ড নৈপুণ্যের কারণে ম্যাচসেরাও হয়েছেন তিনি। এরপরই বড় দুঃসংবাদ পেল বাংলাদেশ!

চলতি বিশ্বকাপের শুরুতেও চোটে পড়েছিলেন সাকিব। ফুটবল নিয়ে দলের অনুশীলন চলাকালে তিনি পায়ে ব্যথা পান। যদিও প্রস্তুতি ম্যাচে না থাকা বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার বিশ্বকাপের শুরুর তিন ম্যাচ খেলেছেন। পরে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচে আবারও চোট পান সাকিব। এরপর ভারতের সঙ্গে ম্যাচটিতে তিনি একাদশে ছিলেন না।

বিশ্বকাপ চলাকালে এর আগে ২৫ অক্টোবর ঢাকায় এসেছিলেন সাকিব। তার সেই সফর নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। পরে জানা যায়, রানখরায় ভোগায় শৈশবের কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিমের সঙ্গে ব্যাটিং নিয়ে কাজ করতে তিনি পা রাখেন ঢাকায়। তিনি ফাহিমের অধীনে দুদিন মিরপুুরে অনুশীলনও করেন। পরে তিন দিনের ছুটি সংক্ষিপ্ত করেই দ্বিতীয় দিন সন্ধ্যায় কলকাতায় দলের সঙ্গে যোগ দেন টাইগার অধিনায়ক।