“বড় ম্যাচে জ্বলে ওঠার জন্যেই আমাকে দলে নিয়েছিলো জুভেন্টাস”- রোনালদো

32

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর অসাধারন হ্যাট্রিকে ইউসিএলের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে জুভেন্টাস। প্রথম লেগে ২-০ গোল হারলেও এক রোনালদোর হ্যাট্রিকেই মূলত কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট পেয়ে গেছে তুরিনের ওল্ড লেডিরা।

হ্যাট্রিক ম্যান রোনালদো।

এটলেটিকো মাদ্রিদকে নিজেদের ঘরের মাঠে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে রোনালদোর জুভেন্টাস। একক নৈপুণ্যে দলকে কোয়ার্টারে নিয়ে গেছেন ক্রিস্টিয়ানো। এমন পারফরম্যান্সের জন্যই ইতালির চ্যাম্পিয়নরা তাকে দলে টেনেছিল বলে মনে করেন পর্তুগিজ এই ফুটবলার।

নিজেদের মাঠে মঙ্গলবার শেষ ষোলোর ফিরতি পর্বে ৩-০ গোলে জিতে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠে ইউভেন্তুস। মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোতে প্রথম লেগে ২-০ গোলে হেরেছিল মাস্সিমিলিয়ানো আল্লেগ্রির দল।

বিরতির আগেই হেডে দলকে এগিয়ে নেন রোনালদো। দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে আরেকটি দারুণ হেডে দ্বিগুণ করেন ব্যবধান। ৮৬তম মিনিটে সফল স্পট কিকে হ্যাটট্রিক পূরণের পাশাপাশি দুই লেগ মিলিয়ে দলকে এগিয়ে নেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

ম্যাচের পর স্কাই স্পোর্ত ইতালিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ৩৪ বছর বয়সী রোনালদো।

“আমাদের দারুণ একটা রাত কাটাতেই হতো। আর এটা অসাধারণ একটা রাতই ছিল। শুধু আমার গোলের জন্য নয়, দলের জন্যও। সম্ভবত এ কারণেই ইউভেন্তুস আমাকে দলে নিয়েছিল। আমি শুধু নিজের কাজটা করলাম। আর এটা ছিল স্বপ্নের মতো একটা রাত। আমরা খুব গর্বিত।”

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের আসরে চার গোল করেছেন রোনালদো। প্রতিযোগিতার ইতিহাসে তার মোট গোল ১২৪টি।