দাবা বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতের ১৮ বছর বয়সী বিস্ময় বালক

বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে ভারতের অন্যতম সেরা দাবাড়ু কিংবদন্তি বিশ্বনাথন আনন্দকে হারিয়ে দেবার পর তাকে নিয়ে গোটা উপমহাদেশেই শোরগোল পড়ে যায়। এবার ফাইনালে পৌঁছে আরেকবার গোটা ভারতকে গর্বিত করলেন রমেশবাবু প্রজ্ঞানন্দ।

আজারবাইজানের বাকুতে সোমবার সেমিফাইনালে প্রজ্ঞার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিশ্ব দাবা র‍্যাংকিংয়ের দুই নম্বর তারকা ফ্যাবিয়ানো কারুয়ানা। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তাকে টাইব্রেকারে পরাজিত করেন প্রজ্ঞানন্দ। ফাইনালে তার প্রতিপক্ষ শীর্ষ দাবাড়ু নরওয়ের ম্যাগনাস কার্লসেন।

কারুয়ানার বিরুদ্ধে প্রজ্ঞানন্দের লড়াইটা মোটেই সহজ ছিল না। রোববার প্রথম দু’টি ক্লাসিক্যাল গেম তীব্র লড়াইয়ে ড্র হয়েছিল। ফলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানেই ৩.৫-২.৫ পয়েন্টে ৩১ বছর বয়সী কারুয়ানাকে পরাজিত করেন বছর আঠারোর প্রজ্ঞা।

এই কিশোরের সাফল্যে মুগ্ধ হয়ে সেমিফাইনলের পর টুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন বিশ্বনাথন আনন্দ। ভারতের সেরা দাবাড়ু লিখেন, ‘প্রজ্ঞা ফাইনালে গিয়েছে। ও ফ্যাবিয়ানো কারুয়ানাকে হারিয়ে এখন ম্যাগনাস কার্লসেনের মুখোমুখি হবে। কী অসাধারণ পারফরম্যান্স!’

ভারত দাবাতে সবশেষ বিশ্বকাপ জিতেছিল ২০১২ সালে। প্রায় এক যুগ পর আবারো শিরোপার সামনে দেশটি। প্রজ্ঞা ফাইনালে যাই হারুক কিংবা জিতুক, ফাইনালে ওঠার পথে আরেকটি কীর্তি সে গড়ে ফেলছে।

আগামী বছর কানাডায় অনুষ্ঠিতব্য ক্যান্ডিডেটস প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে এই ক্ষুদে বিস্ময়। কানাডার এই টুর্নামেন্টে যোগ্যতা অর্জনকারী তৃতীয় সর্বকনিষ্ঠ দাবাড়ু প্রজ্ঞা। তার আগের দুইটি নাম ববি ফিশার এবং কার্লসেন।