বাংলাদেশ কোনো তারকা তৈরি করতে পারেনি; আফগানিস্তান অনেক এগিয়েছে – অশ্বিন

মাঠে গড়িয়েছে এশিয়া কাপের ১৬তম আসর। তবে টুর্নামেন্টে শিরোপার অন্যতম ফেভারিট ভারতের দলে জায়গা পাননি অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তবে এখনও ক্রিকেটের সঙ্গে বেশ ভালোভাবেই যুক্ত আছেন তিনি। অন্তত টেস্ট ক্রিকেটে এখনও ভারতীয় দলের অপরিহার্য মুখ ৩৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

অশ্বিন মাঠের ক্রিকেটে যেমন দাপুটে পারফর্মার, তেমনি ক্রিকেটের বাইরেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ সক্রিয় তিনি। নিজের ফেসবুক, টুইটার কিংবা ইউটিউবে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিয়মিত হাজির হন তিনি। সবশেষ নিজের ইউটিউব চ্যানেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল নিয়ে মুখ খুললেন অশ্বিন।

সাম্প্রতিক সময়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে বেশ ধারাবাহিক দল বাংলাদেশ। অন্য সব দল টাইগারদের এখন মাঠের লড়াইয়ে বেশ সমীহ করে থাকে। তবে অশ্বিনের মতে, বাংলাদেশ দল দারুণ সম্ভাবনাময় হলেও এখানে আজ পর্যন্ত বড় কোন তারকা খেলোয়াড় তৈরি হয়নি। তবে সাকিব আল হাসান যে ব্যতিক্রম, সেটাও জানাতে ভোলেননি তিনি।

বাংলাদেশ দল নিয়ে নিজের মন্তব্যে অশ্বিন বলেন, ‘বাংলাদেশ সব সময় দুর্দান্ত সম্ভাবনা নিয়ে আসে। তারা আমাকে ১৯৯০ সালের ভারতের কথা মনে করিয়ে দেয়। যে দলের অসাধারণ সম্ভাবনা, বিশাল আশা, দারুণ আগামী। কিন্তু বাংলাদেশের চেয়ে আফগানিস্তান দ্রুত এগিয়েছে। কোনো এক কারণে সেরকম তারকা বোলার বা তারকা ব্যাটার তারা তৈরি করতে পারেনি। তবে তারকা অলরাউন্ডার আছে সাকিব আল হাসান। সে ব্যাটে-বলে এখনো অবদান রেখে চলেছে। অধিনায়ক হিসেবে সে ফিরল।’

চলতি বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে তরুণ তাওহীদ হৃদয়ের। জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েই নিজেকে প্রমাণ করে চলেছেন অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার। টাইগার স্কোয়াডে তিনি এখন মিডল অর্ডারে এক আস্থার নাম হয়ে উঠেছেন। অশ্বিনের কণ্ঠেও ঝরলো হৃদয়ের প্রশংসা।

তিনি বলেন, ‘আমি তাওহীদ হৃদয়ের কথা বলবো। সে ৯টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে। ৪৮.২৫ গড়ে ব্যাটিং করেছে। আসন্ন এশিয়া কাপ তার খুব বড় একটি পরীক্ষা হবে। সে যদি এশিয়া কাপে নিজেকে প্রমাণ করতে পারে তাহলে আমি মনে করি এই টুর্নামেন্ট শেষে একজন ব্যাটিং সুপারস্টার পেতে চলেছে।’

বাংলাদেশকে কন্ডিশন নির্ভর দল হিসেবেই দেখছেন অশ্বিন। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় বাংলাদেশ একটি কন্ডিশন নির্ভর দল। তারা যখন মিরপুরে খেলে তখন তারা সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম খেলে। যখন তারা বাইরে খেলতে যায় তখন তাদের ব্যাটিং এবং বোলিং কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে কিনা সেটার দেখা লাগে। কোনো সময় তারা মানিয়ে নেয় আবার কোনো সময় তারা সেটা পারে না।’

এশিয়া কাপ খেলতে এখন শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করছে বাংলাদেশ দল। বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন দল। এরপর ২ সেপ্টেম্বর লাহোরে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।