নারীদের নিয়ে শিষ্টাচারবিরুদ্ধ মন্তব্য করায় রাহুল-পান্ডিয়ার অভিনব শাস্তি

56

‘কফি উইথ করণ’ টিভি শোয়ে নারীদের নিয়ে শিষ্টাচারবিরুদ্ধ মন্তব্য করায় হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলকে অভিনব শাস্তি দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড৷ শাস্তি স্বরুপ তাদের দাতব্য কাজে ২০ লাখ রুপি (প্রায় ৩০ হাজার ডলার) করে খরচের নির্দেশ দিয়েছেন বোর্ডের ন্যায়পাল বিচারপতি ডিকে জাইন।

অবশ্য এরই মধ্যে কিছুটা শাস্তি তারা ভোগ করেছেন। তদন্ত চলাকালে প্রাথমিকভাবে নিষিদ্ধ ছিলেন বলে দুজনই পাঁচটি করে ওয়ানডে খেলতে পারেননি। এরপর দলে ফিরেছেন। দুজনই জায়গা পেয়েছেন ভারতের বিশ্বকাপগামী ১৫ সদস্যের দলেও। আগামী জুন-জুলাইয়ে যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত হবে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ।
ভারতীয় ক্রিকেট দলের নিয়মিত সদস্য অলরাউন্ডার পান্ডিয়া ও ব্যাটসম্যান রাহুলকে নিয়ে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সম্প্রচারিত ‘কফি উইথ করণ’ শো ভীষণ বিতর্কের সৃষ্টি করে। বিশেষ করে, তারা দুজন নারীদের নিয়ে যে নেতিবাচক মন্তব্য করেন, তা ভারতব্যাপী ক্ষোভের সৃষ্টি করে। ঘটনার পরপরই কোর্ট নিযুক্ত ‘কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ (সিওএ) প্রধান বিনোদ রাইয়ের ওপর ভার পড়ে এ দুজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার। যদিও বিসিসিআইতে কোনো ন্যায়পাল কিংবা ইথিকস কমিটি না থাকায় তদন্ত কার্যক্রম ঠিকমতো হয়নি।

আবার এ দুজনকে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ রাখার সিদ্ধান্তও নেয়া যায়নি। তাই মাঝে দুজনকে খেলার অনুমতি দেন কোর্ট। অবশেষে ন্যায়পালের সিদ্ধান্তে শাস্তি পেলেন দুজন। অবশ্য এটা নিষিদ্ধ হওয়ার মতো কিছু নয়। তাদের আর্থিকভাবে জরিমানা করা হয়েছে এবং তা দিতে হবে কোনো দাতব্য কাজে।

ন্যায়পাল হিসেবে নিয়োগ পেয়েই দুই খেলোয়াড়কে ২ এপ্রিল শুনানির জন্য চিঠি দেন বিচারপতি জাইন। ৯ ও ১০ এপ্রিলের শুনানিতে দুই তারকা খেলোয়াড় কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। অবশ্য এর আগেও তারা প্রকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন বিসিসিআই সিইও রাহুল জোহরিও। তিনি ন্যায়পালকে অবহিত করেন, পাঁচ ওয়ানডে খেলতে না পারায় দুজন ম্যাচ ফি হিসেবে যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন থেকে বঞ্ছিত হয়েছেন, তা তাদের শাস্তি হিসেবে যথেষ্টই।

জোহরির যুক্তির সঙ্গে একমত পোষণ করেননি বিচারপতি জাইন। তিনি দুই ক্রিকেটারকে নির্দেশ দেন—তারা যেন প্যারা-মিলিটারি ফোর্সের ১০ সদস্যের বিধবা ও বিপদগ্রস্ত স্ত্রীকে ১০ লাখ রুপি দেন এবং বাকি ১০ লাখ একটি তহবিলে জমা রাখেন, যা দিয়ে অন্ধ ক্রিকেটারদের খরচ নির্বাহ করা যায়।