দারুণ জয়ের দিনে বড় ভাই নাঈমকে হারাল জুনিয়র নাইম

85
Photo: Collected

সাভারে বিকেএসপির মাঠে মুখোমুখি হয় শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব ও লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। টস হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে মোহাম্মদ নাঈম ও নাঈম ইসলামের সেঞ্চুরিতে পাহাড় সমান ৩৫৭ রান গড়ে রূপগঞ্জ। তিন শতাধিক রান করেও ম্যাচটি নিজেদের করতে পারেনি শাইনপুকুর। ২৩ রানের জয়ে শেষ হাসিটা রূপগঞ্জের।

রূপগঞ্জের দুই ওপেনার আজমির ও মোহাম্মদ নাঈম দারুণ শুরু করে। ৪৭ বলে ৪৮ রান করে আজমির আউট হলে তাদের ১৩২ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে। দ্বিতীয় উইকেটেও ৯৩ রানের বড় জুটি গড়েন মোহাম্মদ নাইম। এবারে তার সঙ্গী ছিলেন দলীয় অধিনায়ক নাইম ইসলাম।

দুই নাঈমই দুর্দান্ত খেলে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। নাঈমের ব্যাট থেকে আসে ১০৮ বলে ১২২ রানের এক চমৎকার ইনিংস। ৮টি চার ও ৬টি ছয়ে সাজানো ছিল তার ইনিংসটি।

অধিনায়ক নাঈম ইসলাম যখন সাজঘরে ফেরেন তখন তার নামের পাশে ৯৮ বলে ১০৮ রান। ১১টি চার ও ২টি ছয়ের মার খেলেন তিনি। এছাড়া রূপগঞ্জের বিদেশী কোটার খেলোয়াড় ঋষি ধাওয়ান করেন ২৩ বলে ৩২ রান। সকলের অবদানে ডিপিএলের যৌথভাবে পঞ্চম সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ৩৫৭ রান তুলে দলটি।

শাইনপুকুরের সুজন হাওলাদার, দেলোয়ার হোসেন ও হামিদুল ইসলাম দুইটি করে উইকেট পেয়েছেন। তবে সকলেই ছিলেন খরুচে।

৩৫৮ রানের জবাবে সাব্বির হোসেনের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় শাইনপুকুরও। তাকে সঙ্গ দেন উদয় কৌল। মাত্র ১২.৪ ওভারেই দলীয় শতরান তুলে ফেলে এই জুটি। ব্যক্তিগত ২৯ রানে উদয় আউট হলে ১০৪ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে। তারপরে আফিফ হোসেনও ফিরে যান দ্রুতই। তবে অপরপ্রান্তে চমৎকার খেলতে থাকেন সাব্বির।

মাত্র ২২ বলেই ফিফটি ছুঁয়ে ফেলা সাব্বির হোসেন সেঞ্চুরি করেন ৮৬ বলে। ৮টি চার ও ৩টি ছয়ে সাজানো ছিলো তার দুর্দান্ত ইনিংসটি। তিন অঙ্ক ছোঁয়ার পরের বলেই মুক্তার আলির শিকার হয়ে ফেরেন তিনি।

পঞ্চম উইকেটে আবার বড় পার্টনারশিপ পায় শাইনপুকুর। ৮০ রানের জুটি গড়েন সোহরাওয়ার্দী শুভ ও তৌহিদ হৃদয়। ২৮ বলে ৩৪ রানে রান আউটের ফাঁদে পড়েন শুভ।

বড় ইনিংস খেলেছেন তরুণ ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়ও। তার ব্যাট থেকে আসে ৮১ বলে ৮৩ রান। তার ইনিংসে ছিল ৬টি চার ও ১টি ছয়ের মার। তিনি যখন আউট হন তখনো দলের প্রয়োজন ২৫ বলে ৫৮ রান।

তারপরে সুজন ও দেলোয়ার চেষ্টা করলেও শুধুই হারের ব্যবধান কমাতে পেরেছেন। ১০ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফেরেন সুজন। ৪৯তম ওভারে দুইটি হারিয়ে ১ ওভার বাকি থাকতেই ৩৩৪ রানে অলআউট হয় শাইনপুকুর।

২৩ রানে জয় পায় রূপগঞ্জ। তিনটি উইকেট পেয়েছেন রূপগঞ্জের বাঁহাতি স্পিনার নাবিল সামাদ। দুইটি উইকেট তুলে নিয়েছেন আসিফ হাসান।

দারুণ সেঞ্চুরিতে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেন মোহম্মদ নাঈম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here