তামিম-মুশফিকরা বেঁচে যাওয়ায় স্বস্তি ক্রিকেট বিশ্বে; টুইটারে ঝড়…

1921

নিউজিল্যান্ডের সেন্ট্রাল ক্রাইস্টচার্চের ডিনস ইভে মসজিদ আল নুরে অজ্ঞাত বন্দুকধারীর হামলা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা। এমন সন্ত্রাসী হামলায় নিউজিল্যান্ডকে নিন্দা জানিয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব। সেই সাথে স্বস্তি প্রকাশ করেছে টাইগাররা নিরাপদে থাকায়।

নিরাপদ দূরত্বে ফিরে ওপেনার তামিম ইকবাল টুইটারে ভীতিকর অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন। দোয়া চেয়েছেন সবার জন্য। লিখেছেন, ‘পুরো দল বন্দুকধারীর হামলা থেকে রক্ষা পেয়েছে। ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

অল্পের জন্য রক্ষা পাওয়ায় সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। আর কোনদিন এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে চান না বলে টুইটারে লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহ আজ আমাদের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ হামলা থেকে রক্ষা করেছেন। আমরা ভীষণ সৌভাগ্যবান। আর কোনদিন এমন ঘটনার সামনে পড়তে চাই না। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল নিরাপদে থাকায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে, ‘যখন নিউজিল্যান্ডের মতো জায়গায়ও আপনি গোলাগুলি আর বন্দুকহামলা থেকে রক্ষা পাবেন না, তখন আপনাকে বুঝে নিতে হবে যে পৃথিবী এখন সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় আছে। শুনে স্বস্তি পেলাম যে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল নিরাপদে আছে।’

নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন কিংবদন্তি শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা, ‘ক্রাইস্টচার্চে গোলাগুলির কথা শুনে স্তব্ধ হয়ে গেলাম। আমার অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে যারা প্রিয়জনদের হারিয়েছেন তাদের প্রতি শোক ও সমবেদনা। দুঃখজনক এই ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের জন্য ভালোবাসা ও প্রার্থনা। আহতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন এই কামনা।’

লঙ্কান সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ লিখেছেন, ‘নিউজিল্যান্ডে হত্যাকাণ্ডের কথা শুনে হতবিহবল। ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ভালোবাসা ও প্রার্থনা। শুনে খুশি হলাম যে বাংলাদেশ দল নিরাপদে আছে।’

টুইটে কিউই অলরাউন্ডার জিমি নিশাম লিখেছেন, ‘অনেকদিন ধরে নানা ঘটনা দূর থেকে দেখে ভেবেছি আমরা হয়তো পৃথিবীর এক প্রান্তে, একটু নিরাপদে আছি। আজকের দিনটা এক ভয়াবহ দিন। ভয়ংকর, দুঃখের কথা বলে বোঝানো যাবে না।’

ভারতের অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন, পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতারসহ বিশ্বের নানা প্রান্তের আরও অনেক সাবেক-বর্তমান ক্রিকেটার হতাহতের পরিবারের জন্য শোক ও বাংলাদেশ দলের নিরাপদে থাকা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্বস্তি জানিয়েছেন।

কোহলি লিখেন,

আফ্রিদি লিখেন,

এছাড়া অনেক ক্রিকেটারই টুইটের মাধ্যমে স্বস্তি প্রকাশ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here