বিশ্বকাপে কোনো ম্যাচ না জিতলেও ২ কোটি টাকা পাবে বাংলাদেশ!

অনেক অপেক্ষার পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরের পর্দা উঠেছে। কিন্তু এতদিন জানা গিয়েছিল না চার-ছক্কার এই টুর্নামেন্টের প্রাইজমানির পরিমাণ। এবার সেই ঘোষণাও দিয়ে দিলো আইসিসি। চ্যাম্পিয়ন দল পাবেন ২.৪৫ মিলিয়ন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৯ কোটি টাকা।

সোমবার (৩ জুন) এক বিবৃতিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। দল সংখ্যা বাড়ায় এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রাইজমানিতেও এসেছে বড় পরিবর্তন। রেকর্ড পরিমাণ প্রাইজমানি থাকছে চলমান এই আসরে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর জন্য।

এবারের আসরের চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ২.৪৫ মিলিয়ন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৯ কোটি টাকা। বিশ্বকাপের রানার্সআপ দল পাবে ১.২৮ মিলিয়ন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা। সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়া দল পাবে ৭, ৮৭, ৫০০ মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

এ ছাড়াও অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে কোনো দল যদি একটি ম্যাচও জিততে না পারে তাহলেও বড় অঙ্কের অর্থ পাবে। তাই এই বিশ্বকাপে দুর্ভাগ্যবশত বাংলাদেশ যদি কোনো ম্যাচ জিততে না পারে তাহলেও বড় অঙ্কের অর্থ পাবে।

আইসিসির ঘোষিত প্রাইজমানি অনুযায়ী, ১৩ থেকে ২০ নম্বরে থাকা প্রতিটি দল ২ লাখ ২৫ হাজার ডলার করে পাবে। যা বংলাদেশি টাকায় ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা।

সব মিলিয়ে এবারের বিশ্বকাপে ১১.২৫ মিলিয়ন ডলার খরচা হবে দলগুলোকে পুরস্কৃত করতে। যা বাংলাদেশি টাকায় ১৩২ কোটি টাকার বেশি। গত আসরের চেয়ে এবার প্রায় দ্বিগুণ বরাদ্দ দিয়েছে আইসিসি।