অ্যালেনের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরিতে ভেস্তে গেলো বাবরের হ্যাটট্রিক ফিফটি

আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের জন্যই পরিচিত ফিন অ্যালেন। ইনিংসের শুরু থেকেই ঝড় তুলতে সিদ্ধহস্ত তিনি। আজ ডানেডিনে তাঁর সেই ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের নির্মম বলি পাকিস্তানের বোলাররা।

শাহিন শাহ আফ্রিদি-হারিস রউফদের ওপর এতটাই চড়াও হয়েছেন যে এক সেঞ্চুরিতে রেকর্ড বইয়ের অনেক পাতাই উল্টো-পাল্টা করেছেন অ্যালেন। তাঁর বিধ্বংসী সেঞ্চুরিতে দুই ম্যাচ হাতে রেখে ঘরের মাঠে ৩-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজও জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

আজ পাঁচ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টি–টোয়েন্টিতে পাকিস্তানকে ৪৫ রানে হারিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিকদের সিরিজ জয় নিশ্চিতের একক নায়ক বললেও ভুল হবে না অ্যালেনকে। এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচেই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন তিনি। আজকের বিধ্বংসী সেঞ্চুরির আগে সর্বশেষ ম্যাচেও ৭৪ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছেন তিনি।

ডানেডিনে ডেভন কনওয়ের সঙ্গে ওপেনিং করতে নেমে ১৩৭ রানের ইনিংস খেলেছেন অ্যালেন। সেটিও মাত্র ৬২ বলে। ব্যাটিংয়ে চারের চেয়ে ছক্কা মারতেই আজ বেশি মনোযোগী ছিলেন। ১৬ ছক্কার বিপরীতে মাত্র ৫টি চার মেরেছেন। আর এতেই রেকর্ড বইয়ে নাম তুলেছেন। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি এখন হজরতউল্লাহ জাজাইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে সর্বোচ্চ ছক্কার মালিক তিনি। সমান ছক্কা ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৬২ রানের ইনিংস খেলতে মেরেছিলেন আফগানিস্তানের ওপেনার।

ছক্কায় যৌথভাবে রেকর্ডের মালিক হলেও সেঞ্চুরিতে নন অ্যালেন। ৪৮ বলে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর ১৩৭ রানের ইনিংসটি এখন নিউজিল্যান্ড ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ। আগের সর্বোচ্চ ছিল কিংবদন্তি কিউই ওপেনার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৫৮ বলে ১২৩ রান করেছিলেন সাবেক অধিনায়ক।

অ্যালেনের সেঞ্চুরিটি পাকিস্তানের বিপক্ষেও কোনো ব্যাটারের সর্বোচ্চ। আগের সর্বোচ্চ ছিল মার্ক চ্যাপম্যানের। গত এপ্রিলে ১০৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন কিউই ব্যাটার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এটি পঞ্চম সর্বোচ্চ। অন্যদিকে বলের হিসেবে নিউজিল্যান্ডের হয়ে তৃতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি। ৪৬ বলে সেঞ্চুরি করে শীর্ষে আছেন গ্লেন ফিলিপস।

অ্যালেনের ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে ভর করে ৭ উইকেটে ২৪৪ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। রান তাড়া করতে নেমে সমান ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রানের বেশি করতে পারেনি পাকিস্তান। দলের হয়ে এবারও লড়ে যান বাবর আজম। একমাত্র ফিফটি আসে তার ব্যাটে। সিরিজের টানা তিন ম্যাচেই ফিফটি করলেন বাবর, তবে হ্যাটট্রিক পরাজয় পাকিস্তানের। এতে ৪৫ রানে ম্যাচ হারার সঙ্গে সিরিজও খুইয়ে সফরকারীরা।

এর আগের দুই ম্যাচেও হেরেছিল এই সিরিজ দিয়ে নেতৃত্বের দায়িত্ব পাওয়া শাহিন আফ্রিদির দল। পাকিস্তানের অধিনায়কের শুরুটা তাই সিরিজ হার দিয়েই শুরু হলো। টানা তৃতীয় ফিফটি করেও তাই পরাজয়ই মেনে নিতে হয়েছে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ ৫৮ রান করা ব্যাটার বাবর আজমকে। ম্যাচ সেরা কে হতে পারেন সেটা মনে হয় না বললেও চলে, নায়ক অ্যালেন।