দলে ফিরে উষ্ণ অভ্যর্থনা পেলেন স্মিথ-ওয়ার্নার

249
photo: Collected

বল টেম্পারিংয়ের জন্য এক বছরে নিষিদ্ধ ছিলেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। যদিও অনুষ্ঠানিকভাবে তাদের নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে চলতি মাসের ২৮ তারিখ, জাতীয় দলে খেলতে পারবেন ২৯ তারিখ থেকে।

তবু নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়েই এ দুই ক্রিকেটারকে দলে ফিরিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। তবে খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামানোর জন্য নয়, দলের সবার সঙ্গে পুনরায় একত্রিত করার লক্ষ্যেই মূলত এমন আয়োজন। পুরনো অধিনায়ক-সহ অধিনায়ককে কাছে পেয়ে অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান ক্রিকেটাররা গ্রহণ করেছেন ইতিবাচকভাবেই, উষ্ণ অভ্যর্থনায় ভাসিয়েছেন সবাই।

স্মিথ-ওয়ার্নার দুজনই কনুইয়ের ইনজুরি থেকে ওঠায় তাদেরকে আসন্ন পাকিস্তান সিরিজের দলে রাখেনি অস্ট্রেলিয়া। এর বদলে স্মিথ-ওয়ার্নার খেলবেন আইপিএলে, নিজেদের ফিটনেস এবং ফর্ম যাচাই করে নিতে। আইপিএল খেলতে ভারত যাওয়ার আগে তিনদিনের জন্য দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন এ দুই তারকা ক্রিকেটার।

দুজনকেই স্বাগ্রহে স্বাগত জানিয়েছেন দলের বর্তমান ক্রিকেটাররা। তাদের অভ্যর্থনায় আপ্লুত হয়ে ওয়ার্নার বলেন, ‘এটা দুর্দান্ত ছিলো। মনে হয়েছে আমরা যেনো এতদিন দূরে ছিলামই না। দলের সবাই আমাদের ভালোভাবে গ্রহণ করেছে, দেখেই জড়িয়ে ধরেছে। কারো মধ্যে কোনো দ্বিধা-সংকোচ ছিলো না। ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জেতার প্রভাবই হয়তো এটা।’

তিনি আরও বলেন, ‘তবে আমাদের নিশ্চিত করতে হবে যে বর্তমান দলের সঙ্গে সামনে এগিয়ে যেতে সমান ভূমিকা রাখতে পারি কি-না। আমরা ১২ মাস দলের বাইরে ছিলাম। এসময়ে নিশ্চিতভাবেই নানান পরিবর্তন এসেছে। তাই এখন দেখতে হবে বর্তমান দলে আমাদের ভূমিকা কী দাঁড়ায়, কীভাবে দলকে এগিয়ে নিতে পারি।’

আইপিএল শেষ করে বিশ্বকাপ প্রস্তুতির উদ্দেশ্যে পুনরায় মে মাসের মাঝামাঝিতে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন স্মিথ ও ওয়ার্নার। এর আগে ড্রেসিংরুমে এসে নিজের অনুভূতি জানাতে গিয়ে স্মিথ বলেন, ‘দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারাটা দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। তারা আক্ষরিক অর্থেই আমাদের স্বাগত জানিয়েছে। আমার মনে হচ্ছিলো আমরা কখনোই তাদের ছেড়ে যাইনি এবং সবকিছুই ঠিক পথে আছে।’

স্মিথ আরও বলেন, ‘আমাদের সামনে এখন অ্যাশেজ এবং বিশ্বকাপের মতো দুইটি গুরুত্বপূর্ণ আসর। তাই আমাদের নিশ্চিত করতে হবে যেন সবকিছু সঠিক পথে থাকে এবং আরও ভালো করা যায়। সামনের সময়টা বেশ রোমাঞ্চকর হতে যাচ্ছে। তাই দলের সবাই সেদিকেই মনোযোগী থাকবে, এটা নিশ্চিত করতে হবে। এমনটা হলে আমরাই লাভবান হবো।’

[সুত্র: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here