অভিষেকের দ্বিতীয় ম্যাচেই ৫ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়লেন রাহী

117

কোন ওয়ানডে না খেলা রাহী বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা রাহীর গত ম্যাচে অভিষেক বোলিং দেখে হয়ত ভ্রু উচকে উঠেছিল অনেকেরই। হতে পারতো সেখান থেকেই শেষ বিশ্বকাপ স্বপ্ন। তবে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ পেয়েই যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন পেসার আবু জায়েদ রাহী। আজ ত্রিদেশীয় সিরিজে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত বোলিংয়ে নিয়েছেন ৫ উইকেট। সেই সাথে ২০১৫ এর পর আবারো প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডও গড়েন রাহী।

টসে হেরে বোলিংয়ে নেমে শুরুটা রুবেল এনে দিলেও বাকিটা বোলিংয়ের দিক থেকে রাঙান আবু জায়েদ রাহী।। ইনিংসের ১১তম ওভারে নিজের প্রথম এবং অভিষেক উইকেট পান তিনি। উইকেটের পেছনে মুশফিকের গ্লাভসবন্দি হয়ে বিদায় নেন অ্যান্ডি বালবির্নি (২০)।

এরপর ক্যাচ মিসের মোহড়ায় সেঞ্চুরি হাঁকান পল স্টারলিং। তার সাথে দারুন জুটি গড়েন পোর্টারফিল্ড। তাদের রেকর্ড পার্টনারশিপের পর আবারো ত্রাতা হয়ে হয়র আসেন রাহী। ইনিংসের ৪৫তম ওভারে আইরিশ দলপতিকে ফেরান ব্যাক্তিগত ৯৪ রানে।

৪৭তম ওভারে আবারো আঘাত হানেন রাহি। ফিরিয়ে দেন কেভিন ওব্রায়েনকে। তামিমের হাতে ধরা পড়ার আগে তিনি করেন ৩ রান। একই ওভারে সেঞ্চুরিয়ান স্টার্লিংকে লিটন দাসের হাতে ধরা দিতে বাধ্য করেন রাহি। স্টার্লিং বিদায়ের আগে ১৪১ বলে ৮টি চার আর চারটি ছক্কায় তিনি করেন ১৩০ রান। দলীয় ২৬৪ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় আইরিশরা।

৪৯তম ওভারে বোলিংয়ে এসে রাহি ফিরিয়ে দেন ১২ রান গ্যারি উইলসনকে। এই উইকেটের মধ্যদিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন ৯ ওভারে ৫৮ রান খরচ করা রাহি। সেই সাথে সপ্তম বাংলাদেশী হিসেবে ওয়ানডেতে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড গড়েন রাহী।

উল্লেখ্য, এই ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮ উইকেটে হেরে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ২৯২ রান সংগ্রহ করেছে আয়ারল্যান্ড।